১০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে টেকনাফ শাহপরীরদ্বীপ প্রতিরক্ষা বেড়িবাঁধ পূণ:নিমার্ণ কাজের উদ্বোধন : অবশেষে ২৫হাজার মানুষের মনে স্বস্থি

TEKNAF-PIC-BODI-2-19-10-17-Copy.jpg

হুমায়ুন রশিদ, টেকনাফ |
টেকনাফ শাহপরীরদ্বীপ বাসীর জীবন ও বসতি রক্ষার দীর্ঘদিনের একমাত্র প্রাণের দাবী শাহপরীর দ্বীপের ৬৮নং পোল্ডারের সী-ডাইক অংশের প্রতিরক্ষা বেড়িবাঁধ পূণ:নিমার্ণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে স্থানীয় জনসাধারনের মধ্যে স্বস্থি দেখা দিয়েছে।
১৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়াখালী ভাঙ্গার মুখস্থ মাঠে উক্ত প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি।
উপলক্ষ্যে একসভা কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবরাং ইউপি চেয়ারম্যান নুর হোসেনের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি।
এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য মোহাম্মদ শফিক মিয়া, টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, কক্সবাজার জেলা পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুর রহমান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রধান নৌবাহিনীর লেঃ কর্ণেল আব্দুর রাজ্জাক।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা সোনা আলী, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা জহির হোসেন প্রমুখ। এছাড়া টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহেদ হোসেন ছিদ্দিক, নৌবাহিনীর লেঃ কর্ণেল আব্দুল মালেক, টেকনাফ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) শেখ আশরাফুজ্জামান, আওয়ামীলীগ নেতা মাষ্টার জাহেদ হোসন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলম বাহাদুর সহ স্থানীয় জনসাধারন সহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে উপস্থিত ছিলেন।
১০৬কোটি টাকা ব্যয়ে কক্সবাজার জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাস্তবায়নে এবং নারায়নগঞ্জের সেনাকান্দায় বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ডকইয়ার্ড এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস লিমিটেড এই কাজ শুরু করেছেন। ৭ফুট উচু বেড়িবাঁধ, দীর্ঘ ৩কিলোমিটার আরসি ব্লক দ্বারা এই প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়িত হবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে কোন প্রকার অনিয়ম, দূর্র্নীতি মেনে নেওয়া হবেনা আর স্থানীয় কোন মহল এই প্রকল্প বাস্তবায়নে বাঁধা দাড়ালে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এই প্রকল্পের মেয়াদ আগামী ২০১৯সালের জুন হলেও আগামী ২মাসের মধ্যে উক্ত এলাকায় জোয়ার-ভাটার পানি প্রবেশ বন্ধ করা এবং বছরের মধ্যে টেকসই,মজবুত প্রতিরক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।
উল্লেখ্য ২০১২ সালের পূর্নিমার জোয়ারে শাহপরীরদ্বীপ প্রতিরক্ষা বাঁধটি ভেঙ্গে যায়। এরপর বেড়ী বাঁধের সেই ভাঙ্গা অংশ দিয়ে প্লাবিত হয়ে ভেঙ্গে যায় শাহপরীরদ্বীপ-টেকনাফ সড়কটি। সেই থেকে শাহপরীরদ্বীপের মানুষ নৌকায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগের মধ্যে যাতায়াত করে আসছে। অবশেষে বেড়ী বাঁধটির কাজের উদ্বোধন হওয়ায় শাহপরীরদ্বীপ বাসীর মনে স্বস্থি দেখা দিয়েছে।