চীনের আকাশে হঠাৎ রহস্যময় ‘ফায়ারবল’

6.png

টেকনাফ টুডে ডেস্ক:চীনের আকাশে দেখা গেছে রহস্যময় এক ‘ফায়ারবল’। প্রতি বছরের মতো এ বছরও মধ্য শরতে ‘মুন ফেস্টিভ্যাল’ উদযাপন করছিল চীনের মানুষ।ঠিক তখনই ইউনান প্রদেশে অভূতপূর্ব এই দৃশ্য চোখে পড়ে তাদের। মাঝ আকাশে হঠাৎই এসে হাজির হয় এই ‘ফায়ারবল’ বা অগ্নিগোলক।
গত ৪ অক্টোবরের এই অগ্নিগোলককে প্রত্যক্ষ করে কোটি কোটি মানুষ। দ্রুতই এ ঘটনার ভিডিও ইন্টারনেটেও ছড়িয়ে পড়লে তা ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।
ভিডিওতে দেখা যায়, আগুনের ছোট্ট একটা বল আকাশ থেকে ভূমির দিকে ধেয়ে আসে। আস্তে আস্তে আকার পরিবর্তন করে বিশাল থেকে বিশালাকার হতে থাকে আগুনের এই গোলা। এক পর্যায়ে আঁতশবাজির মতো বিস্ফোরিত হয়ে আকাশ আলোকিত করে এই ফায়ারবল। অনেকে এই দৃশ্য দেখে হতভম্ব হয়ে যায়।
এ ব্যাপারে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, আকাশে ‘ফায়ারবল’ দেখা যাবার এ ধরনের ঘটনা বিরল।
এগুলোকে বোলাইডস বলা হয়। কিছু কিছু উল্কা পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করার পর এই ঘটনা সৃষ্টি হয়। নাসার সেন্টার ফর নিয়ার আর্থ অবজেক্ট স্টাডিস (সিএনইও) ১৯৮৮ সালের পর থেকে বেশ কয়েকটি ফায়ারবলের ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। তারা বলেছেন, চীনে যে ফায়ারবলটি দেখা গেছে তার গতি ছিল সেকেন্ডে প্রায় ১৫ কিলোমিটার। আর যখন বিস্ফোরিত হয় তখন এটি ৫৪০ টন টিএনটি পরিমাণ শক্তি উৎপাদন করেছিল।
উল্লেখ্য, নাসা এ পর্যন্ত ২০টি ফায়ারবল নথিভুক্ত করেছে। তারা বলেছেন, ফায়ারবল পৃথিবীর জন্য বিপজ্জনকও হতে পারে।
সূত্র: ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক