টেকনাফ বিজিবির অভিযানে ৪লক্ষ ৩৫হাজার ইয়াবাসহ দুই মিয়ানমার নাগরিক

Teknaf-Pic-A-24-09-17.jpg

মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম/রাশেদ মাহমুদ রাসেল:টেকনাফে বিজিবি জওয়ানেরা অভিযান চালিয়ে অনুপ্রবেশকালে ১৩কোটি ৪৭লক্ষ টাকার ৪লক্ষ ৩৫হাজার ৮শ ৫পিস ইয়াবা বড়ি ও মুঠোফোনসহ মিয়ানমারের দুই নাগরিককে আটক করেছে।
সুত্র জানায়,গত ২৪ সেপ্টেম্বর ভোররাত সাড়ে ৩টারদিকে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের দমদমিয়া বিওপির হাবিলদার মোঃ লুৎফর রহমান (বিজিবিএম,পিবিজিএমএসের)নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহলদল মিয়ানমার হতে ইয়াবার একটি বড় চালান আসার নিজস্ব গোয়েন্দা সংবাদ পেয়ে নেচারপার্ক বরাবর নাফনদীতে টহলে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পর একটি হস্তচালিত নৌকা বাংলাদেশ সীমান্তে পৌঁছে। উক্ত নৌকা হতে দুই ব্যক্তি ২টি বস্তাসহ স্থলে উঠার চেষ্টা করলে বিজিবি চ্যালেঞ্জ করলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন বিজিবি টহলদল ধাওয়া করে বস্তা দুইটিসহ মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার মংডু থানার মাঙ্গালার মৃত সিরাজুল মোস্তফার পুত্র মোঃ কামাল আহম্মদ (৪৫) ও বসেদ আলীর পুত্র মোঃ ইলিয়াস (৩০)কে আটক করে। এমতাবস্থায় আরো ৪জন লোক নৌকা নিয়ে নাফনদীর শূন্যরেখা অতিক্রম করে ওপারে চলে যায়। ঘটনাস্থল হতে আটক ব্যক্তিদ্বয় এবং ইয়াবা ভর্তি ২টি বস্তা ব্যাটালিয়ন সদরে নিয়ে গণনা করে ১৩কোটি ৭লক্ষ ৪১হাজার ৫শ টাকার ৪লক্ষ ৩৫হাজার ৮শ ৫পিস ইয়াবা বড়ি ও ২হাজার টাকা মূল্যের সিম্পুনি (মডেল-ডি ১৪০) মুঠোফোন পাওয়া যায়। নিষিদ্ধ মাদক ইয়াবা রাখার অপরাধ এবং অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে ধৃতদের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা দায়েরের পর টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।