বিজিবি ও কোষ্টগার্ডের পৃথক অভিযানে ৩৩ জন দালাল আটক

Teknaf-pic-07.09.17.jpg

মোঃ আশেকউল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ :
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য (আরাকানের) সন্ত্রাস দমনের নামে, দমন নিপীড়ন এবং গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে, সে দেশের সামরিক জান্তা ও উগ্রপন্থি রাখাইন। প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে সর্বেস্ব হাতিয়ে নিচ্ছে, দালাল ও ফিসিং বোটের মাঝিরা। সাগর ও নাফ-নদী দিয়ে সমান তালে আসছে রোহিঙ্গাদের ঢল। মিয়ানমারের মংডু দক্ষিনে নাইক্ষংদ্বীয়া থেকে শত শত ট্রলারে অতিরিক্ত রোহিঙ্গা যাত্রী নিয়ে আসছে, নাফ নদী ও সাগর উপকূল দিয়ে। অনুপ্রবেশকারী রাখাইন রাজ্যের কল্লোলের অধিবাসী জামাল হোসেন জানায়, একতো সামরিক জান্তার নির্যাতন এবং প্রাণ ভয়ে এসে এখানে আর্থিক নির্যাতন। চলছে আমাদের উপর “মরার উপর খাঁরা” নামক নির্যাতন। টাকা দিতে না পারলে মুক্তিপণ দাবী করে এবং পরে টাকা দিয়ে ছেড়ে দেয়। এদিকে বিজিবি ও কোষ্টগার্ড সেন্টমার্টিনদ্বীপ ও সাবরাং খুরের মূখে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩৩জন মানব পাচারকারী দালাল ও মাঝিকে আটক করেছে। এর মধ্যে বিজিবি কর্তৃক ধৃত ৯জন দালালকে ভ্রাম্যমান আদালত বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। অপর দিকে সেন্টমার্টিন কোষ্টগার্ড ৬ সেপ্টম্বর সাগরে অভিযান চালিয়ে ২৪ জন দালাল ও মাঝিকে আটক করে টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করেছে। এরা টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলার সমূদ্র উপকূলীয় ইনানী, শামলাপুর, লেঙ্গুরবিল, মিঠাপানির ছড়া, হাবিরছড়া, মহিশখালীয়া পাড়া ও শাহপরীরদ্বীপের স্থায়ী অধিবাসি বলে জানা যায়। বিজিবি ও কোষ্টগার্ড বিষয়টি সত্যতা স্বীকার করেছে।