অনুপ্রবেশকালে ১৪৫ রোহিঙ্গাকে ফেরত

15-4-jug_56531_1503905454.jpg

: কক্সবাজারের টেকনাফের নাফ নদীর জলসীমানা অতিক্রম করে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সময় ১৪৫ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা।

সোমবার সকালে নাফ নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে তাদের ফেরত পাঠানো হয়। ফেরত পাঠানো এসব রোহিঙ্গাদের মধ্যে বেশির ভাগ নারী, শিশু ও বৃদ্ধ।

টেকনাফ ২নং বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম আরিফুল ইসলাম জানান, রোববার দিবাগত মধ্যরাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত পৃথক অভিযানে ১৪৫ জন রোহিঙ্গাকে জলসীমানা অতিক্রম করার সময় প্রতিহত করে স্বদেশে ফেরত পাঠানো হয়।

গত ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৫ শতাধিক রোহিঙ্গাকে আটকের পর মানবিক সহায়তা দিয়ে স্বদেশে ফেরত পাঠায় বিজিবি।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের সীমান্ত চৌকিতে হামলাকারীদের সহযোগিতার অভিযোগ তুলে রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়ন চালায় সেদেশের সেনা-পুলিশ। এ ঘটনায় ঘরহারা হয় ৩০ হাজার মানুষ।

পালাতে গিয়েও গুলি খেয়ে মৃত্যু হয় অনেকের। আতংকে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে প্রায় ৭৮ হাজার রোহিঙ্গা। এসব রোহিঙ্গারা এখনো টেকনাফের লেদা, নয়াপাড়া, শামলাপুর ও উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালীর ক্যাম্পে অবস্থান করছে। আর চলমান অরাজকতায় এ পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে বলে বিভিন্ন সূত্র দাবি করছে।

অনুপ্রবেশের আশায় সীমান্তে অবস্থান করছে আরও ২৫-৩০ হাজার রোহিঙ্গা। যাদের মাঝে নারী-শিশু-বৃদ্ধ বেশি।