বদরখালী ইউনিয়নে দুই ভাইয়ের ব্যক্তিগত তহবিলে বন্যায় ক্ষতবিক্ষত সড়ক মেরামত

Chakaria-Pc-26-08-2017.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
শেখ ছমির উদ্দিন ও শাহাব উদ্দিন শাকিল। তাঁরা দুইজন সহোদার। পেশায় চিংড়ি ব্যবসায়ী ও চাষী। পাশাপাশি দুইজন জড়িত রাজনীতি আর একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে। একজন ইতোপুর্বে জনপ্রতিনিধি ও অপরজন এশিয়ার বৃহত্তম সমবায়ী প্রতিষ্ঠান বদরখালী সমবায় ও কৃষি উপনিবেশ সমিতির পরিচালক নির্বাচিত হয়ে জনসেবায় কাজ করেছেন। দুই সহোদার নিজেদের অবস্থান থেকে জনগনের পাশাপাশি এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করেছেন। এখনও তাঁরা জনগনের কল্যানে কাজ করতে পছন্দ করেন। শেখ ছমির উদ্দিন ১নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক নির্বাচিত মেম্বার। বর্তমানে তিনি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন। অপরদিকে শাহাব উদ্দিন শাকিল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক। দায়িত্ব পালন করেছেন বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নির্বাচিত পরিচালক পদে। বর্তমানে আছেন বদরখালী কলোনীজেশন উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য এবং হামেদিয়া কাদেরিয়া জুনিয়র দাখিল মাদরাসার সম্পাদক পদে।
চলতি বর্ষা মৌসুমে কয়েকদফা বন্যার তান্ডবে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মতো তাদের ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের দুটি পুরানো সড়কও ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এলাকার জনপ্রতিনিধিরা সড়ক দুটির ভগ্নদশার ব্যাপারে অবগত রয়েছেন। কিন্তু এখনো ক্ষতিগ্রস্থ সড়ক দুটির মেরামত কাজ করতে পারেনি। এ অবস্থায় দৈনন্দিন চলাচলে চরম দুভোগের শিকার হচ্ছে এলাকার অন্তত ছয়টি গ্রামের প্রায় ৬হাজার মানুষ। বিশেষ করে ১নম্বর ওয়ার্ড ও ১ নম্বর ব্লকের কুতুবদিয়াপাড়া, মাঝেরপাড়া, উত্তর নতুনঘোনা পাড়া, ঢেমুশিয়াপাড়া, তেচ্ছাপাড়া ও মগনামা পাড়া গ্রামের মানুষের দুর্ভোগের শেষ হচ্ছেনা।
জানা গেছে, এলাকার অন্তত ৬ হাজার মানুষের স্বাভাবিক চলাচলে এমন দুর্ভোগের বিষয়টি চিন্তা করে দুই সহোদর শেখ ছমির উদ্দিন ও শাহাব উদ্দিন শাকিল নিজেদের ব্যক্তিগত তহবিলের প্রায় ৪০ হাজার টাকা খরচ করে কবির মেম্বারের বাড়ি হ্ইতে মাস্টার আবদুচ ছালামের বাড়ি পর্যন্ত পুর্ব-পশ্চিম মধ্য সড়ক ও আবদুল মজিদ ফকিরের বাড়ি লাগোয়া উত্তর দক্ষিন মধ্য সড়কের ক্ষতবিক্ষত অন্তত ১২টি পয়েন্টে ইট বালু দিয়ে মেরামত কাজ সম্পাদন করেছে। চলতি আগষ্ট মাসে বিপুল পরিমাণ শ্রমিক দিয়ে সড়ক দুটির মেরামত কাজ শেষ করেছে। বর্তমানে এলাকার সর্বসাধারণ ওই সড়ক দিয়ে দুর্ভোগ মুক্ত পরিবেশে চলাচল করতে পারছে। #