বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে আবারো ঐক্যবদ্ধভাবে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে হোয়াইক্যংয়ে শোক দিবসের আলোচনায় বক্তারা

Teknaf-Pic-A-2-20-08-17.jpg

জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফঃঃ
হোয়াইক্যং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের জাতীয় শোক দিবসের পূর্ব ঘোষিত অনুষ্ঠানের আলোচনা সভা,দোয়া মাহফিল ও কাঙ্গালী ভোজের মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। ২০আগষ্ট দুপুর ১২টায় টেকনাফের হোয়াইক্যং মডেল ইউনিয়ন কমপ্লেক্স মিলনায়তনে বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলমগীর চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক রাকিব মেম্বারের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জহির হোসেন এমএ,সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মঈনুল হোসেন চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল আমিন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলম বাহাদুর,টেকনাফ উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি শাহজাহান মিয়া চেয়ারম্যান,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সরওয়ার আলম,উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আবুল হোসেন রাজু,সাধারণ সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান,হোয়াইক্যং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল শুক্কুর কোং,দপ্তর সম্পাদক জালাল উদ্দিন মুন্সী,ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের আহবায়ক আব্দুল খলিল চৌধুরী,যুগ্নআহবায়ক হাজী মোঃ কফিল উদ্দিন প্রমুখ। এছাড়া শাহ আলম মেম্বার,সিরাজুল ইসলাম লালু মেম্বার, আব্দুল গাফ্ফার মেম্বার,আব্দুল জাব্বার মেম্বার,সাবেক মেম্বার ছৈয়দ হোসেন উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তারা বলেন,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাজনৈতিক নেতা হওয়ার পর হতে ১৯৭১সাল পর্যন্ত বাঙ্গালী জাতির জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করে একটি স্বাধীন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছিলেন। কিন্তু এদেশীয় কতিপয় ক্ষমতালোভী আমলা পশ্চিমাদের সাথে আঁতাত করে ১৯৭৫সালের ১৫ই আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পুরো পরিবারকে নৃশংসভাবে খুন করে। বিদেশে অবস্থান করায় ভাগ্যক্রমে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা প্রাণে রক্ষা পায়। তারা দেশে ফিরে এসে আওয়ামী লীগকে অনেক ত্যাগ-তিতীক্ষার বিনিময়ে সংগঠিত করতে থাকেন। পর্যায়ক্রমে বাংলার ইতিহাসে অনেক বন্ধুর পথ পেরিয়ে আজ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বসে দেশ ও দেশের মানুষের জীবনযাত্রার মানসহ সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর পরিপূর্ণ স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন সমুহ মিলে আবারো জননেত্রী শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বসানোর বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন। এরপর ১৯৭৫সালে ১৫আগষ্ট ঘাতকদের হাতে শাহাদাত বরণকারী বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের আতœার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন মৌলানা জাফর আহমদ। এরপর উপস্থিত সকলের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়।