ভোটার নিবন্ধনে টাকা নেওয়ায় টেকনাফে তথ্যসংগ্রহকারী শিক্ষক চাকুরী থেকে বরখাস্ত

borkhasto.jpg

আব্দুস সালাম, টেকনাফ |
কক্সবাজারের টেকনাফে ভোটার নিবন্ধনে টাকা নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তথ্যসংগ্রহকারী এক শিক্ষককে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্তকৃত শিক্ষক হচ্ছেন উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দেলোয়ার হোসাইন। তিনি হ্নীলা ইউনিয়নের মুচনী এলাকার বশির আহমদের ছেলে। হালনাগাদ ভোটার তালিকা বিশেষ কমিটির আহবায়ক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আদেশে মঙ্গলবার বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাকে বহিস্কার করেন। চাকুরী থেকে বরখাস্ত এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনও ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন বলে উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে।
এব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভোটার হালনাগাদ বিশেষ কমিটির সভাপতি জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক জানান, ভোটার হালনাগাদে লোকজনের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় শিক্ষক দেলোয়ারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতির পর চাকুরী থেকেও বরখাস্ত করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনও ব্যবস্থা নিবেন বলে তিনি জানান।
উপজেলা সহকারী নির্বাচন কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে তথ্যসংগ্রহকারীকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তদন্তে টাকা নেওয়ার বিষয়টি ¯পষ্ট প্রমাণিত হওয়ায় বিদ্যালয়ের চাকুরী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ভোটার হালনাগাদে অনিয়ম পেলেই দ্রুত এই ধরণের ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।
উল্লেখ্য বরখাস্তকৃত শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে ভোটার অর্ন্তভুক্তির অভিযোগ উঠলে নির্বাচন কমিশন সরেজমিন উক্ত অভিযোগ তদন্ত করে তথ্যসংগ্রহকারী এই শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। ভোটার হালনাগাদে অনিয়ম করায় অব্যাহতি প্রাপ্ত তথ্যসংগ্রহকারী শিক্ষককে চাকুরী থেকে বরখাস্তের ঘটনায় সচেতন মহল ইউএনও এবং নির্বাচন কর্মকর্তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী। উপজেলার অন্যান্য এলাকায় দায়িত্বপালনকারী তথ্যসংগ্রহকারীদের অনিয়মের বিষয়টিও খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন।