নাইক্ষ্যংছড়িতে আঃ লীগের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন অভিযান শুরু

3.8.2017.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী,নাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান)থেকে::

নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী ও হাজী এম,এ কালাম ডিগ্রী কলেজের অধ্যাপক এম, শফি উল্লাহকে সদস্য পদ নবায়ন করার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন অভিযান শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ আগষ্ট) আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে সক্ষিপ্ত অলোচনা সভার মধ্যে দিয়ে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও পুরোনো সদস্যের নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন দলটির জেলা সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হøা মার্মা। বিকেল সাড়ে ৫টায় আলোচনা সভার শুরুতে বান্দরবান জেলা সভাপতি ক্য শৈ হ্লা মার্মা সূচনা বক্তব্য দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগ ভার প্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসলাম বেবী, যুগ্ন সম্পাদক লক্ষী পদ দাস, পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য ও আওয়ামীলীগ নেতা কাজল কান্তি দাস, উপজেলা আওয়ামীলীগ সিনিয়র নেতা অধ্যাপক এম, শফি উল্লাহ, আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ সিরাজুল হক, আওয়ামীলীগ আহ্বায়ক ক্যউচিং চাক্ , যুগ্ন আহ্বায়ক ও সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী, আবু তাহের কোম্পানী, সদস্য সচিব মোঃ ইমরান, সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি তারেক রহমান, সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জসিম উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলী হোসেন মেম্বার প্রমূখ।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব মোঃ ইমরান মেম্বার এই প্রতিবেদককে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, দলীয় সদর ইউনিয়ন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাঁদের সদস্যপদ নবায়ন করেছেন। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই নতুন সদস্য সংগ্রহ ও পুরোনো সদস্যপদ নবায়ন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরপর উপজেলা নেতারা তৃণমূলের ইউনিয়ন, ওয়ার্ড ও পাড়া মহল্লায় এই কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।
আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র অনুসারে, নির্দিষ্ট হারে চাঁদা দিয়ে প্রতি তিন বছর অন্তর দলের সদস্যপদ নবায়ন করতে হয়। আর নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযানও সময়-সময় করা হয়। সর্বশেষ ২০১০ সালে সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছিল। কিন্তু সেবার তা বেশি দিন চলেনি।

আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে। এ জন্য আজকের আলোচনা সভায় জেলা আওয়ামীলীগে কমিটির নেতার উপস্থিতিতে উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, প্রচার সম্পাদক, দপ্তর সম্পাদকসহ বাছাই করা কিছু নেতাদের ডাকা হয়েছে। তাঁদের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম চালুর নির্দেশনা দেওয়া হবে। এ ছাড়া গঠনতন্ত্র, ঘোষণাপত্র, সরকারের উন্নয়নের খতিয়ান ও বিএনপি-জামায়াতের জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলনের ওপর বই ছাপানো হয়েছে। এগুলো তৃণমূলের নেতাদের দিয়ে তা প্রচারের নির্দেশনা দেওয়া হবে।