হ্নীলা উত্তর শাখা যুবদলের কমিটি নিয়ে জেলা বিএনপি নেতা মাষ্টার জাকের হোসেন চৌধুরীর ক্ষোভ

Teknaf-Pic-C-01-08-17.jpg

সাদ্দাম হোসাইন, হ্নীলা।
সদ্য ঘোষিত হ্নীলা ইউনিয়ন উত্তর শাখা যুবদলের কমিটিকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট পদত্যাগ ও গ্রুপিং নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে নানা প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন নেতৃবৃন্দের প্রতি। প্রবীণ এই বিএনপি নেতা ক্ষোভের সুরে টেকনাফ উপজেলা বিএনপি,যুবদল এবং ছাত্রদলের মধ্যে দ্রুত ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়েছে বলে মনে করেন। শীঘ্রই এই কমিটি বাতিল করা না হলে জেলা বিএনপির সভাপতিসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের হুঁশিয়ারী দেন।
১আগষ্ট বিকাল সাড়ে ৪টায় কক্সবাজার জেলা বিএনপি সদস্য,টেকনাফ উপজেলা জাগো দল ও ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি,বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মাষ্টার জাকের হোছন চৌধুরী নিজ বাসভবনে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের নিকট বক্তব্যে বলেন,হ্নীলা ইউনিয়ন উত্তর শাখা যুবদলের কমিটি যেন ইয়াবা কমিটি। বলতে গেলেই ৫নং ওয়ার্ডের ইয়াবা সিন্ডিকেট কমিটি। এতে দলের কোন লাভ হবেনা। হয়তো ব্যক্তি বিশেষের স্বার্থ হাসিল হবে। তাই উত্তর শাখা বিএনপির নির্ভরযোগ্য নেতৃবৃন্দ এরই প্রতিবাদ স্বরূপ পদত্যাগ করেছেন। এই ঘটনা যুবদল ও ছাত্রদলের মধ্যেও বিরাজমান থাকায় আগামীতে দলীয় কার্যক্রম নিয়ে আমি শংকিত। উক্ত কমিটি নিয়ে বিদ্রোহের আগুন পুরো উপজেলায় ছড়িয়ে পড়ছে। তাই আমি আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় স্বার্থের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে অবিলম্বে উক্ত কমিটি প্রত্যাহার করে নেতৃত্ব উপযোগী ত্যাগীদের দিয়ে কমিটি গঠন করুন। এই জন্য আমি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ টেকনাফ উপজেলা বিএনপি,যুবদল ও ছাত্রদল নেতৃবৃন্দকে দলীয় স্বার্থে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি। অন্যথায় শহীদ জিয়ার হাতে গড়া এই সংগঠনকে নিয়ে যারা বাণিজ্য করে পকেটভারী করতে চায়;তাদের কঠোর হস্তে দমন করতে যা যা করতে হয় বিএনপি,যুবদল ও ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ তা করতে প্রস্তুত বলে হুশিয়ারী দিয়ে সর্তক করে দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন হ্নীলা উত্তর শাখা যুবদলের সাবেক যুগ্নআহবায়ক মুরাদ হোসেন চৌধুরী,যুবদল নেতা মোঃ ফায়সেল চৌধুরী,মোঃ শফিক,মোঃ শফিউল আলম,মোঃ ফারুক,মোঃ আনোয়ার প্রমুখ।