উখিয়ায় বুধবার রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছেন ওআইসির মহাসচিব

S.M.Gafur-Pic-01-08-2017-4.jpg

শ.ম.গফুর, উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :
বিশ্বের ৫৭টি মুসলিম দেশের জোট ‘ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা’র (ওআইসি) মহাসচিব ড. ইউসেফ বিন আহমাদ আল-ওথাইমিন চার দিনের সফরে ২ আগষ্ট ( বুধবার) বাংলাদেশে আসছেন।

সফরের তৃতীয় দিন তিনি কক্সবাজারের কুতুপালং শিবির ও আশপাশের এলাকা পরিদর্শন করবেন। সেখানে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের সঙ্গে দেখা করে তিনি ওআইসির পক্ষ থেকে সমবেদনা ও সহমর্মিতা জানাবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, এ সফরের মধ্য দিয়ে তিনি রোহিঙ্গা ইস্যুতে স্থানীয় প্রশাসন ও সেখানে কর্মরত আন্তর্জাতিক মানবিক সহায়তাদানকারী সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিদের কাছ থেকে বাস্তব পরিস্থিতি জানার সুযোগ পাবেন।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ ওআইসিসহ বিভিন্ন ফোরামে সরব রয়েছে।

গত ১১ জুলাই আইভরি কোস্টের অর্থনৈতিক রাজধানী আবিদজানে ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। ওই প্রস্তাবে ওআইসির সদস্য দেশগুলো মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমান সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন-নিপীড়নের খবর আমলে নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানায়। এ ছাড়া জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের নেতৃত্বে গঠিত কমিশনের সুপারিশ দ্রুত বাস্তবায়ন করতেও ওআইসি আহ্বান জানিয়েছে।

ড. ইউসেফ বিন আহমাদ আল-ওথাইমিন গত নভেম্বর মাসে ওআইসি মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর বাংলাদেশে এটিই তাঁর প্রথম সফর। তিনি এই সফরে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন।

ওআইসি মহাসচিব আগামী বৃহস্পতিবার ঢাকায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলাদাভাবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। সেদিন সন্ধ্যায় তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক ও তাঁর সম্মানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন। ওআইসি মহাসচিব আগামী বৃহস্পতিবার ঢাকায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলাদাভাবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। সেদিন সন্ধ্যায় তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক ও তাঁর সম্মানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ওআইসিতে বাংলাদেশের ভূমিকা দিন দিন বাড়ছে। বাংলাদেশের সঙ্গে পরিচিত হতে তাঁর আসন্ন সফর ভূমিকা রাখবে।