সেন্টমার্টিন চ্যানেলে ফিশিং ট্রলার ডুবি নিহত-১, জীবিত উদ্ধার-২৩

Teknaf-pic_1-Copy.jpg

সেন্টমার্টিন চ্যানেলে ট্রলার ডুবিতে উদ্ধার জেলে আমীর হোসেন ও শবি আলম।

নুরুল করিম রাসেল, টেকনাফ ।
সেন্টমার্টিন চ্যানেলে একটি ফিশিং ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে ২৩ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হলেও একজনের মৃত্যু ঘটেছে। বুধবার বিকালে নৌকাডুবির এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জেলে হচ্ছে শাহপরীরদ্বীপ কোনার পাড়া এলাকার লাল মিয়ার ছেলে আব্দু শুক্কুর (৫০)।

কেয়ারী সিন্দবাদের যাত্রী টেকনাফ টুরিস্ট পুলিশের এস আই আব্দুল হক ও সেন্টমার্টিন ইউপি মেম্বার মোঃ হাবিব জানান, সেন্টমার্টিন হতে ফেরার পথে কিছুদুর আসার পর বিকাল ৪টার দিকে বঙ্গোপসাগরে ভাসমান জেলেদের দেখতে পেয়ে জাহাজ থামিয়ে জীবিত ও নিহত জেলেকে উদ্ধার করে টেকনাফ নিয়ে আসা হয়।

সন্ধায় টেকনাফে পৌঁছার পর নিহত ও উদ্ধার জেলেদের কোস্টগার্ডের কাছে হস্তান্তর করা হলে কোস্টগার্ড তাদেরকে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষনা করেন।

কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লে. তাসনীম সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ট্রলার ডুবির ঘটনায় জীবিত উদ্ধার হওয়া জেলে আমীর হোসেন ও মোঃ আইয়ুব জানান, শাহপরীরদ্বীপ জালিয়া পাড়ার মোঃ আলমের মালিকানাধীন দুইটি ফিশিং ট্রলারে ২৪ জন জেলে ও শ্রমিক দুপুরের দিকে বঙ্গোপসাগরে বিহিঙ্গি জালের খুঁটি পুতার জন্য যায়। বিকালে কাজ শেষে একটি ট্রলারে ২৪ জন ফিরে আসছিল। এসময় সেন্টমার্টিন হতে আসা পর্যটক জাহাজ এলসিটি কুতুবদিয়া ও কাজল নামের দুটি জাহাজ সেন্টমার্টিন হতে ফিরছিল। জাহাজ দুটির ঢেউ এসে ট্রলারে ধাক্কা দিলে সেটি সাগরে ডুবে যায়। এসময় সেন্টমার্টিন থেকে আসা অপর একটি পর্যটক জাহাজ তাদেরকে উদ্ধার করে টেকনাফে নিয়ে আসে।

নিহত মৎস্য শ্রমিক আব্দু শুক্কুর

নিহত মৎস্য শ্রমিক আব্দু শুক্কুর