উখিয়ার শহীদ এটিএম জাফর আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের বনভোজন সম্পন্ন

ATM-jafor-school.jpg

শহিদুল ইসলাম, উখিয়া :
১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালো রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এটিএম জাফর আলম পাকবাহিনীর গুলিতে নিহত হন। প্রথম সারির শহীদ হিসাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের একজন স্বীকৃত শহীদ এটিএম জাফর আলম কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার সন্তান। এ জন্যই নানা ভাবে পুরো কক্সবাজারবাসী শহীদ এটিএম জাফর আলমের নিকট অনেক ঋণী। দীর্ঘদিন ধরে ঘুনে ধরা এ সমাজে শহীদ এটিএম জাফর আলমের কোন মূল্যায়ন ছিল না। ২০০৮ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধা বান্ধব সরকার গঠিত হলে তাদের ভাগ্য উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রাখতে শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজারের গর্ব শহীদ এটিএম জাফর আলমের নামে সড়কের নামকরণসহ বিভিন্ন ভাবে স্মৃতিসংরক্ষন করা আরম্ভ করেন সরকার। স্থানীয় গুণীজন ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ উৎসাহিত হয়ে নিজেদের উদ্যোগে উখিয়ার কোর্টবাজার এলাকায় শহীদ এটিএম জাফর এর নামানুসারে ২০১৬ সালের ১ অক্টোবরে “শহীদ এটিএম জাফর আলম উচ্চ বিদ্যালয়” নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়। এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে অবহেলিত এলাকার দরিদ্র পরিবারের ছেলে মেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলার কাজে হাত দেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে দেড় শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী এ শহীদের বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত রয়েছে। ৭ জনের একটি চৌকষ শিক্ষক টিম পুরোদমে পাঠ চুকানোর জন্য বিনা বেতনে নিয়মিত পরিশ্রম করে আসছেন। গতকাল রোববার ১২ ফেব্রুয়ারি বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে বনভোজন উদ্যাপন করেন। এ সময় শিক্ষক/শিক্ষিকা, অভিভাবক, শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তিবর্গ, আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ ও ছাত্র/ছাত্রীদের উপস্থিতিতে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এক কোলাহলপূর্ণ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সকলের উপস্থিতিতে শহীদ এটিএম জাফর আলম উচ্চ বিদ্যালয়টি মিলন মেলায় মুখরিত হয়ে উঠে। উক্ত বনভোজন অনুষ্টানে অতিথিদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও কারাপরিদর্শক আবুল মনসুর চৌধুরী, উখিয়া ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরুল হাকিম, উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল আলম মাহবুব, ইউপি সদস্য আবদুল গফুর মেম্বার, সায়েম চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম, গিয়াস উদ্দিনসহ আগত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় স্কুলের শিক্ষক/শিক্ষিকাদের মধ্যে সহকারি শিক্ষক আবুল মনজুর, শাহেদা আকতার তন্নি, শায়েরা আকতার, রাশেদা আকতার, রুমি বড়–য়া, ইমরান হোসেন প্রমুখ।