টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে আরো একটি অত্যাধুনিক জাহাজ যুক্ত হলো

MV-BANGHALI.jpg

মোঃ আশেকউল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ :

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-পথে যে ক’টি জাহাজ চলাচল করছে, তার মধ্যে আরো একটি আধুনিক মানের জাহাজ যুক্ত হলো। তার নাম এম,ভি বাঙালী। পর্যটন শিল্প বিকাশে বে অব বেঙ্গল গ্রুপ ট্যুরিজমের নতুন সংযোজন সর্ববৃহৎ বহুতল বিলাস বহুল জাহাজ এম,ভি বাঙালী দেশের সর্বদক্ষিণ ও পূর্বে মিয়ানমার সীমান্তবর্তী বঙ্গোপসাগরের বুকচিরে জেগে উঠা বিশ্বের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমনের জন্য বিলাস বহুল ও ৎ সকল সুযোগ সুবিধার সমন্বয়ে তৈরী এম,ভি বাঙালী জাহাজ পর্যটকদের প্রতি সাদর আমন্ত্রণ জানাচ্ছে।

গত ২ ফেব্রুয়ারী টেকনাফ দমদমিয়া জাহাজ ঘাটে এম,ভি,বাঙালী সেন্টমার্টিনদ্বীপে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। সরকার পর্যটন শিল্পের বিকাশের উদ্দেশ্যে এবং নৌ-পরিহন মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকদের জানমালের নিরাপত্তা এবং ঝুঁকির স্বার্থে বিলাস বহুল আধুনিকমানের এম,ভি বাঙালী জাহাজ’টি চালু করে। সর্ববৃহৎ বহুতল জাহাজটি এ পথে চালু হবার পর পর্যটকদের এর কদর বৃদ্ধি পেয়েছে। যা দৃষ্টি নন্দন বললেই চলে। এম,ভি বাঙালী জাহাজটি নাফ-নদীর বুকচিরে যখন টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন দ্বীপের উদ্দেশ্যে যাতায়াত করে, তখন সবাইকে অভিভূত করে ফেলে।

এ জাহাজে যে ক’টি বৈশিষ্ঠ রয়েছে, তার মধ্যে তিন তলা বিশিষ্ট বিলাস বহুল যাত্রীবাহী জাহাজ, পাঁচহাজার পর্যটক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন সী-ক্রজ, ১ হাজার লোকের ধারণক্ষমতা সম্পন্ন সেমিনাল রুম, দুযোর্গপূর্ণ আবহাওয়ায় সমূদ্র পথে নিরাপদ চলাচল উপযোগী, নৌ-মন্ত্রনালয়ের নীতিমালা অনুযায়ী লাইফ র‌্যাফট, লাইফ জ্যাকেট, লাইফ বয়া, ক্যপসুল ও রেসিক্উ বোড সংরক্ষিত।

এছাড়া প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত অভিজ্ঞ নাবিক, মাষ্টার ও দক্ষ গাইড দ্বারা পরিচালিত। এসি নন কেবিনের ব্যবস্থা, দ্রুততম সময়ে নিরাপদে গন্থব্যে পোঁছানোর নিশ্চয়তা, প্রতি ফ্লোরে প্রথম শ্রেণীর ক্যান্টিন সার্ভিস, নিজস্ব কোম্পানীর পরিচালনায় সূলভে প্যাকেজ ভ্রমনের সুবিধা, প্রতিটি কেবিনে এটাচট বাথরোম ছাড়া ও রয়েছে ৪০ টি উন্নতমানের কমন বাথরুমের সুবিধা ও কর্পোরেট ইভেন্ট সভা সেমিনার, কনফারেন্স ও ওপেন কনসার্ট এর আয়োজন করা হয়।

টেকনাফ থেকে প্রতিদিন সকাল ৯:৩০ মিনিট জাহাজটি ছাড়া হয় এবং বিকাল ৩ টায় সেন্টমার্টিন থেকে ফিরে। পৌছতে সময় লাগে ১ ঘন্টা ৩০ মিনিট। অগ্রিম টিকেট বুকিং নিতে এ নাম্বারে ০১৮১৯-৬৩৩২৪৮ / ০১৭১১-২২৯৬৬২ / ০১৭১১-৩১০৮৫২ ও ০১৮২৪-৫৭১১১৫ যোগাযোগ করুন।