টেকনাফে মালয়েশিয়া ফেরত এক ব্যক্তির আত্মহত্যা

suicide_25830.jpg

টেকনাফ প্রতিনিধি :
টেকনাফে আব্দু রশিদ (৩৪) নামে মালয়েশিয়া ফেরত এক ব্যক্তি গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকার হাফেজ ড্রাইভারের ছেলে ও দুই সন্তানের জনক।

রোববার রাত ৮টার দিকে বাড়ির পাশের জনৈক ছৈয়দ মাষ্টারের বসত ভিটায় একটি গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

জানা গেছে, মৃত আব্দু রশিদ বেশ কয়েক বছর ধরে মালয়েশিয়ায় প্রবাস জীবন কাটাচ্ছিল। এ ফাঁকে রশিদের বন্ধু পুরান পল্লান পাড়া এলাকার ইউছুপের সাথে স্ত্রী সনজিদার মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর জের ধরে প্রবাস থেকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বেশ টানাপোড়ন চলে।
এ নিয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর আবু হারেছ শালিসী বৈঠক করে বিষয়টির পরিসমাপ্তি ঘটান।

পরবর্তীতে স্ত্রী সনজিদা বেগম স্বামীর সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে মাস তিনেক আগে তাকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

দেশে ফিরে সে স্ত্রীর সাথে জাদিমুড়া এলাকায় শ্বাশুড় বাড়িতে বসবাস করে আসছিল। কিন্তু কয়েকদিন যেতে না যেতেই পুনরায় স্ত্রীর সাথে কলহে জড়িয়ে মাস খানেক আগে শ্বাশুড় বাড়ি থেকে পুরান পল্লান পাড়া এলাকায় পৈত্রিক বাড়িতে চলে আসে। অপরদিকে তার স্ত্রী চলে যায় চট্টগ্রামে।

গত শনিবার মানসিক অস্থিরতায় সে বিপুল পরিমান ঘুমের ট্যাবলেট সেবন করলে স্বজনরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সর্বশেষ রোববার রাতে সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

খবর পেয়ে টেকনাফ থানা পুলিশের একটি টীম ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। বর্তমানে লাশ টেকনাফ থানা হেফাজতে রয়েছে।