দুর্নীতির দায়ে কক্সবাজারে পিআইও গ্রেপ্তার

78654.jpg

বলরাম দাশ অনুপম, কক্সবাজার থেকে ॥

দুর্নীতির দায়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা ও মহেশখালীর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শফিউল আলমকে গ্রেপ্তার করেছে দুদক। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে সদর উপজেলা পরিষদ কার্যালয় থেকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ শফি উল্লাহ’র নেতৃত্বে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাকে সহযোগিতা করেন সদর মডেল থানার আওতাধীন বাস টার্মিনাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এএসআই) মোশাররফ হোসেন। আটকের পর দুপুরেই কক্সবাজার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে শফিউল আলমকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুদকের উপ-সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ শফি উল্লাহ। গ্রেপ্তারকৃত পিআইও শফিউল আলমের বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়ার চরম্বা গ্রামে। সে উখিয়া উপজেলার সাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাও। দুদক চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারি পরিচালক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শফি উল্লাহ জানান-পিআইও শফিউল আলম শাকিব ২০১২-১৩ অর্থ বছরে উখিয়ার ৫নং পালংখালী ইউনিয়নের জন্য ৩৮১ জন শ্রমিকের বিপরীতে ৯টি প্রকল্পের মধ্যে “বালুখালী উচ্চ বিদ্যায়ের ফুটবল খেলার মাঠ সংস্কার ও বালুখালী ছড়া খাল পুন:খনন প্রকল্প” এর কাজ বাস্তবায়নের জন্য ২০৬ জন শ্রমিকের বিপরীতে ১৪ লক্ষ ৩৭ হাজার ৬২৫ টাকা অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী না করে প্রতারণার মাধ্যমে পরস্পর যোগসাজসে ক্ষমতার অপব্যবহার করে আত্মসাত করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় দুদক চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ শফি উল্লাহ বাদী হয়ে উখিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (যার মামলা নং-১৫, তারিখ-১২/০৫/২০১৫, ধারা-৪০৯/৪২০/১০৯ দঃবিঃ এবং ১৯৪৭ সনের ২নং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা।