যে ঘরে ধর্ষণের শিকার, সে ঘরেই আত্মহত্যা

sui_38075_1485697422.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক :

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ধর্ষণের শিকার এক গৃহবধূ লোকলজ্জায় আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে।

রোববার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

ওই গৃহবধূর নাম ফুলবানু (১৮)। তিনি কুতুবপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আলাইয়াপুর গ্রামের ব্যাপারী বাড়ির দিনমজুর আবুল কাশেমের মেয়ে।

নিহতের বাবা আবুল কাশেম জানান, প্রায় ছয় মাস আগে সেনবাগ পৌরসভার অর্জুনতলা গ্রামে ফুলবানুর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বেশিরভাগ সময় ফুলবানু তার বাবার বাড়িতে থাকত।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, শনিবার দিনগত রাত ১১টার দিকে পার্শ্ববর্তী সোনাইমুড়ী উপজেলার অম্বরনগর এলাকার আবদুল খালেকের ছেলে সোহাগ প্রকাশ ওরফে ইয়াবা সোহাগ (২৮) তাদের ঘরে ঢুকে তার মেয়ে ফুলবানুকে ধর্ষণ করে।

ফুলবানুর বাবা জানান, এসময় তিনি ঘরে ঢুকলে সোহাগ দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে তিনি বিষয়টি স্থানীয় কয়েকজন জনপ্রতিনিধিকে জানান।

এদিকে রোববার ভোরে ফুলবানুকে ডাকাডাকির একপর্যায়ে কোনো সাড়া না পেয়ে বাড়ির লোকজন ঘরের দরজা ভেঙে ঘরের আড়ার সঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়।

নিহত ফুলবানুর এক চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী সোহাগকে এই কাজে সহযোগিতা করেছেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা।

বেগমগঞ্জ থানার ওসি সাজেদুর রহমান সাজিদ জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের পরিবারকে থানায় দিতে বলা হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।