ইসলামাবাদে সেচের লুটকৃত মালামাল উদ্ধার

554433-2.jpg

আনোয়ার হোছাইন, ঈদগা্ও ।।
ককসবাজার সদর ঈদগাঁও পুলিশের অভিযানে সেচ প্রকল্পের লুটকৃত মালামাল উদ্ধার ও জড়িত একজন আটক হয়েছে। ২৬ জানুয়ারী গভীর রাতে ইসলামাবাদ ইউনিয়নের পুর্ব গজালিয়ায় এ অভিাযান চালানোয় হয়। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, অভিযোগের ভিক্তিতে অভিযান চালিয়ে সেচ প্রকল্পের লুটকৃত মালামাল পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় বলে জানান অভিযান পরিচালনাকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই দেবাশীষ সরকার।অভিযোগকারী জয়নাল আবেদীন জানান,অভিযানের সময় পুলিশের সাথে সে নিজে ছিল এবং রুহুল আমিন নামের লুটের ঘটনায় জড়িত আটক যুবকের স্বীকারোক্তি মতে পুলিশ পুর্ব গজালিয়ার মৃত আবদুল গনির ছেলে সিরাজুল ইসলামের বাড়ি থেকেই লুটকৃত মটরসহ মালামাল উদ্ধার করে।তবে বাড়িওয়ালাকে আটক করেনি। অভিযান পরিচালনাকারী পুলিশ এসআই দেবাশীষ সরকার রহস্যজনকভাবে পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে বলে সংবাদকর্মীদের জানালেও খোদ সিরাজুল ইসলাম নিজেই তার ঘর থেকেই মালামাল উদ্ধারের কথা স্বীকার করে বলেন, ঐ সব তার কাছে রক্ষিত ছিল। পুলিশ কর্মকর্তার দ্বিমুখী ভুমিকায় জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকার কৃষকরা সেচের মালামাল লুটের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবী জানান। উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারী রাতে সিরাজের নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের সশস্ত্র বাহিনী জয়নালের মালিকানাধীন সেচ প্রকল্পের ঘরে হানা দিয়ে মটরসহ অন্যান্য মালামাল লুট করে নিয়ে বলে ঐ দিন রাতেই জয়নাল জড়িতদের বিরুদ্ধে ঈদগাও পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।