ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশনারকে তলব

bangladesh_pakistan_diplomacy_37741_1485360090.jpg

করাচিতে অবস্থিত বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনে বোমা ছুঁড়ে মারার ঘটনায় ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানের হাইকমিশনার রাফিউজ্জামান সিদ্দিকীকে তলব করা হয়েছে।

বুধবার বিকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়।

এসময় পাকিস্তানে বাংলাদেশের কূটনীতিক ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা জোরদারের দাবি জানানো হয়।

করাচিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনার নূর-ই-হেলাল সাইফুর রহমান বুধবার রাতে টেলিফোনে যুগান্তরকে বলেন, ‘করাচিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় কে বা কারা বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনে একটি হাত বোমা নিক্ষেপ করে।’

তিনি বলেন, ‘বোমাটি ডেপুটি হাইকমিশনের কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরে সীমানা প্রাচীরের দেয়ালের ওপর পড়ে বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এসময় চারপাশে আতংক ছড়িয়ে পড়ে’।

হেলাল সাইফুর আরও জানান, পাকিস্তানের রেঞ্জার নামের নিরাপত্তা কর্মীরা ওই সময় সেখানে মোতায়েন ছিল। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, করাচিতে বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনের পক্ষ থেকে বিষয়টি ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়।

এরপর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক অণুবিভাগের মহাপরিচালক মনোয়ার হোসেন বুধবার বিকালে পাকিস্তানের হাইকমিশনার রাফিউজ্জামান সিদ্দিকীকে তলব করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত এক বিবৃতিতে বলেছে, পাকিস্তান হাইকমিশনারের সঙ্গে বৈঠককালে ইসলামাবাদে বাংলাদেশের হাইকমিশন, করাচিতে বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশন এবং সেখানকার কূটনীতিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিরাপত্তার ইস্যু বাংলাদেশ উত্থাপন করেছে।

এ সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক স্মরণ করিয়ে দেন, কূটনৈতিক মিশনের প্রাঙ্গনে যে কোনো প্রকার অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা কিংবা উস্কানির হাত থেকে সুরক্ষা দেয়া স্বাগতিক সরকারের দায়িত্ব।