ইজতেমা থেকে ১৩০ রোহিঙ্গাকে ফেরত

istema_-_tongi_1_37258_1484912592.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দান এলাকা থেকে ১৩০ রোহিঙ্গা মুসলিম নাগরিক ফেরত পাঠিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে তাদের ফেরত পাঠানো হয়।

শুক্রবার গাজীপুরের সকালে ইজতেমা ময়দানে পুলিশ কন্ট্রোল রুমে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার জানান, প্রায় ১৩০ জন রোহিঙ্গা ইজতেমাস্থলে এসেছিলেন, তাদের কোনো খিত্তা না থাকায় তারা এখানে বসতে পারেনি।

তিনি জানান, এখানকার নিয়ম হল সবাই নিজ নিজ এলাকার খিত্তায় বসবে। তারা বিশ্ব ইজতেমায় আসার বিষয়টি ইজতেমার মুরুব্বিদের পূর্বে কোনো অবগত করেনি। যার কারণে তারা চলে গেছে। তাদের গ্রেফতার করা হয়নি।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রোহিঙ্গারা পুলিশকে জানায়, তারা মিয়ানমার থেকে কাগজপত্র ছাড়া অবৈধভাবে প্রায় মাস খানেক আগে বাংলাদেশে প্রবেশ করে কক্সবাজারে পৌঁছে। বাংলাদেশ হয়ে বিদেশে পাড়ি জমানোর পরিকল্পনা করছিল তারা।

কয়েকদিন আগে মাথাপিছু এক হাজার টাকা দিয়ে স্থানীয় দালালের মাধ্যমে সাধারণ মুসল্লিদের সঙ্গে মিশে তারা কক্সবাজার থেকে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে আসে।

পুলিশ সুপার জানান, এর আগে ৬৪ জেলার মুসল্লিদের এক সঙ্গে নিয়ে ইজতেমা হত। সে সময় বেশি ভিড় হত। এখন ৬৪ জেলা একসঙ্গে না হয়ে কম জেলা নিয়ে হয়। সেক্ষেত্রে সেবাটা আমরা বেশি দিতে পেরেছি। এতে মুসল্লিরাও খুশি।

তিনি আরো জানান, ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তার জন্য পাঁচ স্তরে পুলিশের ছয় সহস্রাধিক সদস্য কাজ করছেন। এছাড়াও র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সদস্যসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা ইজতেমা এলাকায় মোতায়েন রয়েছেন।