হ্নীলা মাদরাসার পরিচালক আবছার উদ্দিন চৌধুরী অপসারণ: মুফতি আলী আহমদ ভারপ্রাপ্ত পরিচালক

unnamed-10.jpg

জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ::
আন্দোলনের মুখে টেকনাফের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হ্নীলা আল জামেয়া দারুস সুন্নাহ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আবছার উদ্দিন চৌধুরীকে অপসারণ করা হয়েছে। তদস্থলে মুফতি মাওলানা আলী আহমদকে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্বভার দেওয়া হয়েছে। শিক্ষক কর্তৃক ২০দফা দাবীর প্রেক্ষিতে ১৭জানুয়ারী বিকেলে মজলিসে শুরার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।
সুত্র জানায়, শিক্ষকরা পরিচালক মাওলানা আবছার উদ্দিনের বিরুদ্ধে ২০টি অভিযোগ উত্থাপন করে সাংসদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান, শুরা সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক বরাবর লিখিত আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে শুরা কমিটি মাদরাসা মিলনায়তনে এক জরুরী বৈঠকে বসেন। এতে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা রফিক উদ্দিন, হ্নীলা ইউপির চেয়ারম্যান আলহাজ এইচ.কে.আনোয়ার, টেকনাফ পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাওলানা মুজিবুর রহমান, শুরা কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তের জন্য উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা রফিক উদ্দিন, মাওলানা নুরুল ইসলাম ও আব্দু রহিম বোখারীকে সদস্য করে ৩সদস্য বিশিষ্ঠ একটি কমিটি গঠন করেন। উক্ত কমিটি আগামী ২মাসের মধ্যে শুরা কমিটির সভাপতি মাওলানা সুলতান যওক নদভীর নিকট তদন্ত রিপোর্ট পেশ করবেন বলে জানাগেছে।
তদন্ত কমিটির প্রধান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা রফিক উদ্দিন জানান, ২মাসের মধ্যে উত্থাপিত অনিয়ম স্বচ্ছতার সাথে তদন্ত করে শুরা বরাবর প্রতিবেদন পেশ করা হবে।
জানতে চাইলে অভিযুক্ত পরিচালক মাওলানা আবছার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ইনশাআল্লাহ আমি নির্দোষ প্রমাণিত হবো। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শুরা কমিটি যা পদক্ষেপ নিবেন তা তিনি মেনে নিবেন বলে সাফ জানিয়েছেন।