পিএমখালীর ছনখোলায় ডাকাতি অব্যাহতঃডাকাতের হামলায় গুরুতর আহত ব্যবসায়ী

.jpg

বার্তা পরিবেশকঃ
কক্সবাজার সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের ছনখোলা এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা ও আলীর জাহালের কম্পিউটার দোকান হাসেম কমিউনিকেশন ব্যবসায়ী ও দৈনিক আপনকণ্ঠ পত্রিকার কম্পিউটার অপারেটর মোহাম্মদ হাসেম অফিস শেষে বাড়িতে যাওয়ার পথে ছনখোলার ঘাট পারাপার হওয়ার পরপরই গত ১২ জানুয়ারী রাত অনুমান সাড়ে ১১টার সময় রফিক আলমের পুত্র বাক্কেয়া প্রকাশ ডাকাত বাক্কা ও তার ভাই নুরুল আলমসহ কয়েকজন মিলে ডাকাতির ঘটনা ঘটানোর ফলে উক্ত ব্যবসায়ীকে অস্ত্র দ্বারা মারধর পূর্বক তার পকেটে থাকা আনুমানিক ২০ হাজার টাকা ও ১২ হাজার টাকার দামের একটি মোবাইল সেট গুরুতর আহত করে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।
জানা যায়, ছনখোলা এলাকায় একাধিক ডাকাতি ঘটনার নেতৃত্বদানকারী রফিক আলমের পুত্র বাক্কেয়া প্রকাশ ডাকাত বাক্কা ও তার ভাই নুরুল আলমসহ কয়েকজন মিলে ছৈয়দ নুরের কাছ থেকে মৎস্য চাষের জন্য একটি প্রজেক্ট লাগিয়ত নিয়ে তারা রাত হলে যে কাউকে একা পেলে ৪/৫ জন মিলে ডাকাতির ঘটনা সংঘঠিত করে।
আরো জানা যায়, ছনখোলা এলাকায় তারা বিভিন্ন ডাকাতির ঘটনার সাথে নিয়মিত জড়িত থাকে এবং তাদেরকে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলে বলতে না পারায় এ জঘন্যতম অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে দিন দিন। তাই এলাকাবাসীরা উক্ত ডাকাতদেরকে প্রশাসনের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্থি প্রদান করলে এলাকাবাসীদের মাঝে সুখের ছোয়া নেমে আসবে। তারা এর আগেও কয়েকটি ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িত ছিল বলেও অভিযোগ উঠেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান তারা বিভিন্ন দেশীয় তৈরি অস্ত্রশস্ত্র মাধ্যমে ছনখোলা এলাকার কেটে খাওয়া মানুষদেরকে ডাকাতি করে মারধরপূর্বক সব কিছু উজাড় করে নিয়ে যায়। আহত ব্যক্তিকে প্রাথমিক চিকিৎসার দেওয়া হচ্ছে।