আইফোনের আদলে রিভলভার, ইউরোপজুড়ে ত্রাস

186968_187.jpg

অনলাইন :

দেখতে একেবারে আইফোন। কিন্তু প্রাণঘাতী একটা ভয়ংকর আগ্নেয়াস্ত্র! একটা বোতাম টিপেই সন্ত্রাসীরা ঘটিয়ে দিতে পারে বড়সড় নাশকতা। নাইন এমএম ডবল ব্যারেল রিভলভারের মতো নাগাড়ে বুলেট ঝরাতে পারে এই আইফোন-রিভলভার। কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই একসঙ্গে লুটিয়ে পড়তে পারে বহু মানুষ। আইফোনের আদলে এই অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে এখন তোলপাড় গোটা ইউরোপ। তটস্থ পুলিশও। ইতিমধ্যেই এই আগ্নেয়াস্ত্রটি সম্পর্কে সতর্কবার্তাও ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। নজরদারি বাড়ানো হয়েছে ইউরোপ মহাদেশের প্রতিটি সীমান্ত এলাকায়। বেলজিয়াম পুলিশ জানিয়েছে, নতুন এই আইফোন-রিভলভারের দামও খুব একটা বেশি নয়। আইফোনের দামের অর্ধেক। অর্থাৎ ৩৩০ পাউন্ডের কাছাকাছি।

মিনেসোটার আইডিয়াল কনসিল নামের একটি সংস্থা এই আইফোন-রিভলবারটি তৈরি করেছে। তাদের ফেসবুক পেজ’-এর তথ্য উদ্ধৃত করে ইউরোপের বেশ কয়েকটি খবরের কাগজ জানিয়েছে, খুব শিগগিরই আগ্নেয়াস্ত্রটি আমেরিকার বাজারে পাওয়া যাবে। সংস্থার পক্ষ থেকে আরো বলা হয়েছে, অত্যাধুনিক যুগের সঙ্গে সাযুজ্য রেখেই আইফোন-রিভলভারটি তৈরি করা হয়েছে। বাজার চলতি আইফোনের সঙ্গে মূলগত কোনও পার্থক্য নেই। খুব সহজেই সেটিকে নিয়ে ঘোরাফেরা করা যায়। এমনকী আইফোন-রিভলভারটি লক করা থাকলে চূড়ান্ত নিরাপত্তার নজরদারিও এড়ানো সম্ভব।

আগ্নেয়াস্ত্রটির এই বিশেষ গুণই মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ইউরোপ পুলিশের কাছে। সন্ত্রাসীরা যেকোনো মুহূর্তে নিরাপত্তার নজর এড়িয়ে বিমানবন্দর, রেলস্টেশন কিংবা অন্য কোনো গুরুত্বপূর্ণ জনবহুল এলাকায় আইফোন-রিভলভারে হামলা চালাতে পারে। গত ক’মাসে ইউরোপে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। ওইসব ঘটনার ক্ষেত্রে এই আগ্নেয়াস্ত্রটি সন্ত্রাসীরা ব্যবহার করেছিল কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই বেলজিয়াম পুলিশের তরফে আইফোন-রিভলভারের একটা আকৃতি প্রকাশ করে চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে। যদিও রিভলভারটি এখনো তাদের হাতে এসে পৌঁছায়নি। মনে করা হচ্ছে, ইউরোপের বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠন কিংবা অন্ধকার জগতের লোকেরা রিভলবারটি আমদানি করতে পারে। সেক্ষেত্রে তারা ব্যবহার করতে পারে সীমান্ত এলাকাকে। সেই কারণে সীমান্তেও রিভলভারটির সম্পর্কে বিশদ তথ্য জানিয়ে কড়া সতর্কবার্তা পাঠানো হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, চোখের দেখাতে বোঝা যাবে না আইফোন-রিভলভারটি একটি মারাত্মক আগ্নেয়াস্ত্র। বাজার চলতি আইফোন-৭’র সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে। দু’টির মধ্যে পার্থক্য করা বড় কঠিন।