পাঠ্যপুস্তকে ভুল : এনসিটিবির ২ কর্মকর্তা ওএসডি

ntc_36238_1483967831.jpg

চলতি শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটির জন্য জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী এনসিটিবি’র দুই কর্মকর্তাকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে এনসিটিবি’র প্রধান সম্পাদক প্রীতিশ কুমার সরকার ও ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ লানা হুমায়রা খানকে ওএসডি করা হয়েছে।

পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন ডাকার পরই এ সব পদক্ষেপ নেওয়া হল।

এদিকে, দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রুহী রহমানকে মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে। এ কমিটির অপর দুই সদস্য হচ্ছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব মাহমুদুল ইসলাম ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (মাধ্যমিক) মো. ইলিয়াস হাসেন।

কমিটিকে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের অধীনে প্রকাশিত ২০১৭ সালের পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি নির্ণয় ও এসব ভুলত্রুটির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে যথাযথ সুপারিশসহ প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

ইতোমধ্যে জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) সদস্য (অর্থ) অধ্যাপক কাজী আবুল কালামকে আহ্বায়ক করে গঠিত তিন সদস্যের কমিটিকে ভুলত্রুটি পর্যালোচনা করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এ কমিটির প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে ২ কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছে।