গ্রামেও অপশক্তির বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার ছাত্রলীগ

unnamed-1.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী,নাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান)থেকেঃঃ
শীতের কুয়াশাচ্ছান্ন সকালে গ্রামের মেঠো পথে হঠাৎ মিছিলে ‘জয় বাংলা ও ছাত্রলীগের স্লোগান’। স্লোগান শুনে রাস্তার দুপাশে ভিড় করছে উৎসুক জনতা। দোকানপাটের মানুষগুলোর নজরও মিছিলের দিকে।
গতকাল বুধবার (৪জানুয়ারি) সকাল নয়টায় রামুর গর্জনিয়ায় এ দৃশ্য দেখা যায়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরবের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে বের হয় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রাটি গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে বোমাংখিল, পূর্ব বোমাংখিল ও গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ হয়ে টাইম বাজার প্রদক্ষিন শেষে শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে মিলিত হয়। এসময় ‘শুভ শুভ শুভ দিন, ছাত্রলীগের জন্মদিন’ ‘এসো নবীন দলে দলে, ছাত্রলীগের পতাকা তলে’ ‘আজকের এই দিনে, মুজিব তুমায় মনে পড়ে’ ‘শেখ হাসিনা ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই’সহ নানা স্লোগানে মোখর হয়ে উঠে জনপদ।
মিছিলে অংশ নেন রামু উপজেলা যুবলীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আবছার কামাল, গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি শাহরান চৌধুরী মারুফ, ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের যুগ্ম আহবায়ক নাছির উদ্দিন, সাবেক ছাত্রলীগনেতা সাহাব উদ্দিন, ছাত্রলীগনেতা মোহাম্মদ আয়াছ, নুরুল আজিম, আবু হান্নান, ফরহাদুল ইসলাম সিকদার, ইনজামাম উল হক চৌধুরী, নাজিম উদ্দিন, আরফাতুল ইসলাম সানি প্রমূখ। শোভাযাত্রা শেষে সংক্ষিপ্ত এক আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তাঁরা। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীনেতা রাজিব শর্মা, রণি শর্মা, শাহাদাত, ইমরান, মহিউদ্দিন, আসহাব, তারেক, আরিফ, আবছার, বাবু, সোহেল, করিম, সাইফুল, মুমিনসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী।
গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, গৌরবের শিরোপা মাথায় নিয়েই ছাত্রলীগ আজ তার ৬৯তম বসন্তে এসে দাঁড়িয়েছে। ইতিহাস সাক্ষ্য আছে, তেরি পথে কখনো হাঁটেনি ছাত্রলীগ। বরং পথ তৈরি করে নিয়েছে বার বার। অহর্নিশ লড়াই সংগ্রামে ইতিহাসের অগ্নিগর্ভে জন্ম নিয়েছে ৫২, ‘৬২, ‘৬৯ এবং অবশেষে ‘৭১। সেই ছাত্রলীগে কোন অপশক্তি নতুন করে ভর করতে পারে না। গ্রাম পর্যায়েও ছাত্রলীগের প্রকৃতনেতারা আজ অপশক্তির বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার। সেটা জানান দিতেই দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গ্রামের মেঠো পথে শোভাযাত্রা বের করা হয়েছে।