চার দফা দাবী নিয়ে মাঠে পরিকল্পিত কক্সবাজার আন্দোলন

.jpg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :
বিশ্বের দীর্ঘতম সৈকত নগরী কক্সবাজারকে সাজাতে চার দফা দাবী নিয়ে মাঠে নেমেছে পরিকল্পিত কক্সবাজার আন্দোলন।
‘টাকার নোটে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ছবি ছাপানো, পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে জাতীয় পর্যটন নগরী ঘোষণা, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ট্যুরিজম এ্যাম্বাসেডর নিয়োগ ও সাগরের ভাঙ্গন থেকে সৈকত নগরী রক্ষায় টেকসই বাঁধ নির্মাণ’ দাবীতে ৩১ ডিসেম্বর (শনিবার) বিকালে সৈকতে আসা হাজারো পর্যটকদের সঙ্গি করে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
‘আজকের পদক্ষেপ আগামীর পরিকল্পিত কক্সবাজার’ শ্লোগান ধারণ করে সামাজিক আন্দোলনের সংগঠন ‘পরিকল্পিত কক্সবাজার আন্দোলন’ এর ব্যানারে এ কর্মসুচি পালিত হয়েছে।
সংগঠনটি মূখপত্র সাংবাদিক আব্দুল আলীম নোবেলের নেতৃত্বে ২০১৬ সালের বিদায়ের দিনের কর্মসুচিতে
সাংবাদিক আমিনুল হক আমিন, এম. আমান উল্লাহ, ইমাম খাইর, মোহাম্মদ শফিক, যুব সংগঠক রাছিব আহমদ রাছিব, নুরুল আলম সিকদার, মম আহমদ, দিদারুল ইসলাম দিদার, রাশেদুল আরাফাত প্রমুখ। কর্মসুচিতে স্থানীয় লোকদের পাশাপাশি সৈকতের আসা দেশি বিদেশী পর্যটকরা স্বঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণ করে।
উল্লেখ্য, ‘পরিকল্পিত কক্সবাজার আন্দোলন’ এর প্রধান উপদেষ্টা ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান সমন্বয়ক পরমানু বিজ্ঞানী ড. মীর কাশেম, সমন্বয়ক (আইন) ব্যারিস্টার ফারজানা রশিদ।