জামিনে এসেই প্রবাসীর উপর হামলা চালিয়েছে নাজু চৌধুরী বাহিনী

RRR-1.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া |
ইয়াবা পাচারকালে কারসহ গ্রেফতার হয়ে জামিনে বেরিয়ে এসেই পুলিশকে ইয়াবা পাচারের তথ্য দেওয়ার অভিযোগ এনে এক প্রবাসীর উপর অস্ত্রসন্ত্রে সঞ্জিত হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে টেকনাফের হোয়াইক্যৎ ইউনিয়নের আলোচিত আওয়ামীলীগ নেতা নাজু চৌধুরীর বাহিনী।ধারালো অস্ত্রের গুরুতর আহত প্রবাসী হাজী আব্দুর শুক্কুরকে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে,দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতাশীল দলের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে টেকনাফের হেয়াইক্যং ঘিলাতলী এলাকার আওয়ামীলীগ নেতা নাজু চৌধুরী ইয়াবা পাচার করে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেছে।গত ২৯ নবেম্বর কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের কুতুপালং বুড়িরঘর এলাকায় কক্সবাজারগামী একটি বিলাস বহুল কার গাড়িতে তল্লাসী চালিয়ে ২৪১৫ পিস ইয়াবাসহ ৪ জনকে আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে ছিল কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনসারুল করিম ও তার ব্যবহৃত প্রাইভেট কার সহ টেকনাফের সাবেক আওয়ামীলীগ নেতা নাজির হোসেন চৌধুরী প্রকাশ নাজু চৌধুরী তার দ্বিতীয় স্ত্রী আনোয়ারা বেগম ও ছাত্রলীগনেতার কথিত প্রেমিকা সাদিয়া ইসলাম।এ মামলায় আটক আওয়ামীলীগ নেতা নাজু চৌধুরী গত ১৯ ডিসেম্বর উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আসার পর পুলিশকে ইয়াবা পাচারের তথ্য দেওয়ার অভিযোগ এসে গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৪ টায় নাজু চৌধুরীর নেতৃত্বে তার ছেলে তার ছেলে এনামুল হোসেন বাবু,মোবারক হোসেন ইকবাল বাহার চৌধুরীসহ ১০/১২ জনের একটি সশস্ত্র দল স্থানীয় প্রবাসী মৃত মোজাহের মিয়ার পুত্র হাজী আব্দুর শুক্কুরকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আহত করে।স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করান। তার মাথায় ১০ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে কর্তব্যরত ডাক্তার এনামুল হক জানিয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রত্রিুয়া চলছে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নাজু চৌধুরী ঘটনার কথা অস্বীকার করেন।