জেলা পরিষদে আমি প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করলে নূন্যতম সম্মান থেকে বঞ্চিত হতো ভোটাররা…সালাহউদ্দিন মাহমুদ

.jpg

চকরিয়া,পেকুয়া,কুতুবদিয়া ও উখিয়ায় মোটর সাইকেল
প্রতীকের সমর্থনে গণসংযোগকালে

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
আগামী ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্টিতব্য কক্সবাজার জেলা পরিষদের নির্বাচনে মোটর সাইকেল প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা এএইচ সালাহউদ্দিন মাহমুদ শনিবার ও রোববার সারাদিন জেলার চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল, পূর্ববড়ভেওলা, পশ্চিম বড়ভেওলা, বদরখালী, বিএমচর, কৈয়ারবিল, পেকুয়া, কুতুবদিয়া ও উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের সাথে মতবিনিময়, সৌজন্যে স্বাক্ষাত ও গণসংযোগ করেছেন।
এসময় চেয়ারম্যান প্রার্থী বরণ্য রাজনীতিবিদ এএইচ সালাহউদ্দিন মাহমুদ বলেছেন, জেলা পরিষদ নির্বাচনে আমি প্রার্থী না হলে ভোটাররা তাদের নূন্যতম সম্মান থেকে বঞ্চিত হতো। এতে কোন সন্দেহ নেই। আমি প্রার্থী হওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বারদের কাছে অনেকে ধর্ণা দিচ্ছেন। প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী অন্তত ভোট চাইতে ভোটারদের কাছে যাচ্ছে। প্রার্থী না হলে তাঁরা ভোটারদের খবরও নিতনা। তিনি বলেন, আমি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালে কক্সবাজারের ৮ উপজেলার যা উন্নয়ন করেছি গত পাঁচবছরে তার সিকিভাগ কাজও হয়েছে বলে মনে হয়না। বিশেষ করে আমার হাতে গড়া জেলা পরিষদ ভবন, কক্সবাজার প্রেস ক্লাব, চকরিয়া উপজেলার বাটাখালী ব্রীজ সহ জেলায় যেসব উন্নয়ন করেছি তা আজ কালের স্বাক্ষী। তিনি বলেন, ২৬বছর পর এসে আমি আবারো জেলা পরিষদের সেই অস্পূর্ণ উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিতে চাই। বিশেষ করে জেলার উত্তরাঞ্চলসহ সমস্ত জেলা পরিষদের ব্যবস্থাপনায় কাংখিত উন্নয়ন জনগন পায়নি। একইভাবে জনপ্রতিনিধিরাও যোগ্য সম্মান ও ন্যায্য অধিকার টুকু পায়নি। তারা বারে বারে বঞ্চিত হয়েছে। তাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে কক্সবাজারকে উন্নয়নে মহাসড়কে এগিয়ে নিতে সম্মানীত ভোটারদের যোগ্য রায় আমি প্রত্যাশা করছি। সালাহউদ্দিন মাহমুদ আরো বলেন, চেয়ারম্যান-মেম্বাররা ইউনিয়ন পরিষদের সকল শালিস-বিচার করেন। এখন সময় এসেছে জেলা পরিষদের সর্বোচ্চ আসনে যোগ্য ব্যক্তি বাছাই করার শালিস। আমাকে সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ্য মনে করলে, জেলার ৮ উপজেলাকে ঢেলে সাজাতে এবং যথাযথ সেবা ও উন্নয়ন নিশ্চিতকল্পে আমার মোটর সাইকেল প্রতীকে ভোটারদের মূল্যবান রায় প্রত্যাশা করছি।
মতবিনিময় ও গণসংযোগকালে সংশ্লিষ্ট সকল ইউপি চেয়ারম্যান, সদস্য-সদস্যাগন, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন রাজনৈতিকদলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।###