উখিয়ায় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ধারালো দা,র কুপে বন প্রহরী মৃত্যু ঝুঁকিতে

-2.jpg

শ.ম.গফুর,উখিয়া :
উখিয়ার বালুখালীতে সামাজিক বনায়নের গাছ কাটায় বাধাঁ দেওয়ায় পাহারদাকে কুপিয়ে জখম করেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।শনিবার দুপুর আড়াই টায় উখিয়া রেঞ্জের উখিয়ার ঘাট বন বিটের ২০১১-১২ সালের সৃজিত ৩০ হেক্টর সামাজিক বনায়নের মুছ গাছতলী নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।
আহত খাইরুল বশর এর পরিবার সুত্রে জানা যায়, সামাজিক বনায়নের অংশীদার হিসেবে উখিয়ার ঘাট বন বিটের বন প্রহরী তরিকুলের নির্দেশে বাগান পাহারা দিতে যান। মুছ গাছতলী নামক স্থানে ১৫/১৬ জনের রেজিস্টার্ড ও আন – রেজিস্টার্ড রোহিঙ্গা কাঠচোর গাছ কাটছে মর্মে খবর পেয়ে ৫/৬ জন অংশীদার এগিয়ে যান।রোহিঙ্গা কাঠচোরদের গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা কোন কিছু বোঝে ওঠার আগেই ধারালো দা, দিয়ে পাহারাদারদের ধাওয়া করে কোপাতে থাকে। ঘটনাস্থলে খাইরুল বশর (২৫) ও নুরুল আমিন (২২) নামক দুইভাই আহত হয়।আহতরা উখিয়ার ঘাট কাস্টমস এলাকার মৃত মো: করিম ড্রাইভারের পুত্র বলে জানা গেছে। আহতদের স্থানীয় প্রতেক্ষ্যদর্শী
গ্রামবাসী লোকজন উদ্ধার করে কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও খাইরুল বশর এর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। গুরুতর জখমী খাইরুল বশরের ঘাড় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে অন্তত ৪/৫ টি কুপের গভীরতায় বেশী রক্তক্ষরণ হওয়াতে অবস্থা আশংকাজনক বলে দায়ীত্ব ও কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান। এ ব্যাপারে ঘটনায় জড়িত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী রেজিস্টার্ড শিবিরের হাবিবুর রহমান,রিয়াজুল,রফিক ও ইউসুপ সহ অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জনকে অভিযুক্ত করে উখিয়া থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে খাইরুল বশরের মাতা নুর আয়েশা জানান। উখিয়ার ঘাট বিট কর্মকর্তা মোবারক আলী জানান, এ বিষয়ে আমি অবগত নয়। এ ব্যাপারে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের জানান, এখনো অভিযোগ পায়নি। পেলে তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হইবে।