হোয়াইক্যংয়ের উনছিপ্রাংয়ে ছোট ভাইয়ের মেয়ে কে বিয়ে না দেয়ায় বড়ভাইয়ের মেয়ে নিয়ে চম্পট!

Untitled-1-copy.jpg

বার্তা পরিবেশকঃ

টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং এর উনছিপ্রাং এর মালয়েশিয়া প্রবাসীর মেয়ে হাফছা বেগম নামক ৮ম শ্রেনীর এক মাদ্রাসা ছাত্রী কে নিয়ে উধাও হয়ে গেছে একই এলাকার মালয়েশিয়া ফেরত হাফেজ মঈন উদ্দিন ওরফে মইন্না।
জানা যায়, হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাং এলাকার মৃতু মৌলভী ছৈয়দ আলমের পুত্র মঈন উদ্দিন মালয়েশিয়া থেকে সম্প্রতি বাংলাদেশ আসে গত ৩ মাস আগে।

ইতিমধ্যে উক্ত মঈন উদ্দিন বউ পাগল হয়ে রাস্তায় অনেক স্কুল, মাদ্রাসা পড়–য়া ছাত্রীদের উত্ত্যাক্ত করার নানা ঘটনার জম্ম দিয়েছে।

সর্বশেষ উনছিপ্রাং এর এক প্রভাবশালীর ৭ম শ্রেনীতে পড়–য়া মেয়ে কে জোর করে বিয়ের পিড়িতে বসাতে নানা দৌড়ঝাপ দেয়।

অবশেষে গত ৬ ডিসেম্বর দিন দুপুরে উনছিপ্রাং এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী মোঃ কলিমুল্লাহর মেয়ে হাফছা বেগম(১৭) খারাংখালী দারুত তওহিদ বালিকা মাদ্রাসা থেকে ফেরার পথে মঈন উদ্দিন ও তার চিহ্নিত কয়েকজন সাঙ্গপাঙ্গ হাফছা কে জোর করে নিয়ে দ্রুত সিএনজিতে উঠে পড়ে।এর পর টেকনাফ হয়ে বাহারছড়া-কক্সবাজার সড়ক পথে কক্সবাজার চম্পট দেয়।

হাফছা বেগম(১৭) খারাংখালী দারুত তাওহিদ বালিকা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী।

এলাকাবাসী প্রত্যক্ষদর্শির মতে, ছোট ভাইয়ের মেয়ে কে বিয়ে না দেয়ায় অবশেষে মঈন উদ্দিন প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে বড় ভাই কলিমুল্লাহর মাদ্রাসায় পড়–য়া ছাত্রীকে অপরণ করে নিয়ে যায়।

বর্তমানে উভয়ের হদিস নেই বলে জানান এলাকাবাসী।

সর্বশেষ পাওয়া খবরে জানা যায়, অপহৃত হাফছার মাতা শমসুন্নাহার মেয়ে কে উদ্ধারে পুলিশী ব্যবস্থা নিতে মামলার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, হাফছা মাদ্রাসায় আসেনি। তবে হাফছা তার চাচাতো ভাইয়ের সাথে চলে গেছে বলে শুনেছি। অপহৃতা হাফছা হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাং ৩ নং ওয়ার্ডের নব নির্বাচিত মেম্বার আব্দুল বাছেতের বড় ভাইয়ের মেয়ে বলে জানা গেছে।