সেন্টমার্টিনে কোস্টগার্ডের পৃথক অভিযানে ৬ লাখ ইয়াবাসহ ৪ পাচারকারী আটক, ট্রলার জব্দ

Teknaf-Pic-A-06-12-16.jpg

মো আশেক উল্লাহ ফারুকী :
সেন্টমার্টিনে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৬ লাখ পিস ইয়াবা সহ ৪ পাচারকারীকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় একটি বোট জব্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোররাত পৌনে ২ টায় ও সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টায় এ দুটি অভিযান চালানো হয়। আটক চার পাচারকারী হচ্ছে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাবিরছড়া গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে বাবুল মিয়া (১৮), মোহাম্মদ সিরাজের ছেলে জমির আহমদ (৩৫), হোসেন আহমদের ছেলে ইদ্রিস (৩২) ও সলিম উল্লাহ’র ছেলে মোহাম্মদ জোবায়ের (১৮)।
কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লে. কমান্ডার নাফিউর রহমান ও সেন্টমার্টিন অফিস ইনর্চাজ লে. আতাউর রহমান জানান, সেন্টমার্টিন দ্বীপের ছেড়াঁদিয়ার পশ্চিম পার্শ্বে সোমবার রাতে কোস্ট গার্ড টহল টিম একটি বোটে তল্লাশি করে। এতে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। পরে চার পাচারকারীসহ বোট ও ইয়াবা জব্দ করা হয়।
অপরদিকে কোস্টগার্ডের আর একটি টহল টিম মঙ্গলবার ভোররাত পৌনে ২ টার দিকে সেন্টমার্টিনের পশ্চিম বীচে ৩ জন লোককে হাটাহাটি করতে দেখে তাদের চ্যালেঞ্জ করে। এরা এ সময় কয়েকটি বস্তা ফেলে পালিয়ে যায়। পরে বস্তা গুলোতে সাড়ে ৫ লাখ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।
কোস্টগার্ড জানায়, পৃথক অভিযানে জব্দ ৬ লাখ পিস ইয়াবার মূল্য প্রায় ৩০ কোটি টাকা। ইয়াবাসহ আটককৃতদের টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে ইয়াবা উদ্ধারের এ ঘটনায় ট্রলারটির মালিক ও ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাবিরছড়া এলাকার মো: কালু প্রকাশ তক্তা কালুর ছেলে আব্দুল মতলব, মো: আমিন ও গোদারবিল এলাকার নুরুল আমিনসহ বেশ কয়েকজনের একটি সিন্ডিকেটের নাম ধৃতদের স্বীকারুক্তি ও অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে।