টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা নাজু চৌধুরী স্ত্রীসহ ইয়াবা বহনকারী কার আটক

Copy-of-Picture1-2-768x307.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক::
কক্সবাজার টেকনাফ সড়কের শীর্ষ ইয়াবা নিয়ন্ত্রক ও পাচারকারী সদস্যের অন্যতম গড ফাদার টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি নাজির হোসেন চৌধুরী প্রকাশ নাজু চৌধুরী, তার স্ত্রী ও নাতনি এবং তার প্রেমিক ছাত্রলীগ নেতা আনসারকে ইয়াবা বহনকারী ভিআইপি প্রিমিও কার সহ আটক করেছে উখিয়া থানা পুলিশ।

জানা যায়, ৩০ নভেম্বর বুধাবার দুপুর ২টার দিকে কক্সবাজর-টেকনাফ সড়কের উখিয়া বুড়ির ঘর নামক এলাকায় উখিয়া থানা পুলিশ তল্লাশী চালানোর সময় চট্টমেট্রো-অ-০০-০১২০ ভিআইপি প্রিমিও কারে সন্দেহ জনকভাবে তল্লাশী চালানোর সময় ২৪১৫ পিচ ইায়াবাসহ আটক করে। আটককৃতরা হলেন টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কেরেনতলী গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দু রশিদের পুত্র ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নাজির হোসেন চৌধুরী প্রকাশ নাজু চৌধুরী (৬০) তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫৫) নাতনি শফিকুর রহমানের মেয়ে সাদিয়া ইসলাম (১৮), তার প্রেমিক ছাত্রলীগ নেতা কক্সবাজার কলাতলীর মোঃ আলীর পুত্র আনসারুল করিম (২৫)।
বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ক্ষমতাসীন দলের নাম ও পদবী ব্যবহার করে নাজির হোসেন চৌধুরী ও তার পুত্র সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এনামুল হক বাবু চৌধুরী কক্সবাজার টেকনাফ সড়কের ইয়াবা নিয়ন্ত্রকের অন্যতম গড ফাদার ও পাচারকারী দলের সক্রিয় সদস্য। পিতা পুত্র ও আত্মীয় স্বজনেরা মায়ানমার থেকে সহজলভ্য ইয়াবা আমদানী করে কক্সবাজার সহ টট্টগ্রাম ও রাজধানী ঢাকা-শহরে পাচার করে আসছিল। এমন একটি সময় ছিল নাজির হোসেনের নুন আনতে পান্তা পুরাত কিন্ত বর্তমানে সে নাজির হোসেন ও তার পুত্র বাবু মরণনেশা ইয়াবার ব্যবসা করে কোটিপতি বনে গেছে এলাকার গণমুখে। নাম লেখিয়ে এলাকার দানবীর খ্যাত ক্ষমতাসীন দলের পদ পদবী ব্যবহার করে যাচ্ছে যত্রতত্র। কোটি টাকা ব্যয় করে তৈরী করেছে দৃষ্টিনন্দন বাড়ি। ব্যবহার করে যাচ্ছে নামিদামি মটর বাইক ও উন্নতমানের গাড়ি। এছাড়াও নামে-বেনামে কক্সবাজার শহর সহ টেকনাফ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ক্রয় করেছে কোটি কোটি টাকার জায়গা জমি।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের ইয়াবা ও কার গাড়ি আটকের সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে কক্সবাজার জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।