জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে টেকনাফে রাজনৈতিক দলের মধ্যে শুরু হয়েছে গুঞ্জন

zila_30730_1479152621.jpg

আবুল কালাম আজাদ, টেকনাফ |
আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে টেকনাফে রাজনৈতিক দলের মধ্যে শুরু হয়েছে নানা গুনজন। অনেকেই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এদের মধ্যে বেশির ভাগই ক্ষমতাসীন দলের নেতারা। অপর দিকে বৃহত্তর দল বি, এন, পি এ নির্বাচনে অংশ নিবে কিনা এখনও স্থির করেনি বলে উপজেলার কয়েকজন নেতা জানিয়েছে। অপর দিকে অন্যান্য রাজনৈতিক দল গুলো অংশ নেওয়ার জন্য মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। এর মধ্যে জাতীয় পার্টির নাম শুনা যাচ্ছে। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের সূত্র অনুযায়ী আগামী ডিসেম্বরে জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। জেলা পরিষদের নির্বাচন অন্যান্য নির্বাচনের চেয়ে ভিন্ন।

এ নির্বাচন সরাসরি গণ ভোটের মাধ্যেমে অনুষ্টিত হচ্ছেনা। নির্বাচিত জন প্রতিনিধির প্রত্যক্ষ ভোটে ১ জন চেয়ারম্যান, প্রতিটি ওয়ার্ডে ১ জন পুরুষ সদস্য, ৩ টি ওয়ার্ডে ১ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নির্বাচিত হবেন।

সূত্রে জানায় কক্সবাজার জেলা পরিষদে ১৫ টি ওয়ার্ডে ভাগ করা হয়েছে। এখানে ১৫ জন পুরুষ সদস্য ও ৫ জন মহিলা সদস্য নির্বাচিত হবেন।

উল্লেখ্য যে, যেকোন বাংলাদেশের নাগরিক নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। তবে কোন জন প্রতিনিধি অংশ নিতে চাইলে স্ব-পদে বহাল থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না। প্রতিনিধির পদ ত্যাগ করে অংশ নিতে হবে বলে নির্বাচন সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে এ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতা কর্মীর আগ্রহ থাকলে ও এখনও পর্যন্ত ভোটের মাঠে নেমে আসেনি। গোপনে গোপনে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতাদের সাথে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপর দিকে কে পাবেন স্ব-স্ব দলের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের দলীয় নমিশন এই নিয়ে অনেক চেয়াম্যান পদ প্রার্থী স্ব-স্ব দলের হাই কমান্ডের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে। দলীয় প্রধানদের নেক নজর পড়লে দলীয় পদ নিশ্চিত হয়ে যাবে বলে স্ব-স্ব দলের রাজনৈতিক নেতারা জানান।