পেকুয়ায় আ’লীগ নেতা ওয়াহিদ ওযারেচীর নেতৃত্বে পাড়ালিয়া সামাজিক কবরস্থানের জায়গা জবরদখল মুক্তে জনমনে স্বস্তি উল্লাস শিলখালীতে

78655.jpg

এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী;পেকুয়া |
কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় তরুন আওয়ামীলীগ নেতা বিশিষ্ট সমাজসেবক ওয়াহিদুর রহমান ওয়ারেচীর নেতৃত্বে পাড়ালিয়া সামাজিক গণকবরস্থানের জায়গা জবর দখলমুক্তে জনমনে স্বস্তি উল্লাস দেখা দিয়েছে শিলখালীতে। ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সামাজিক গণকবরস্থান জবর দখলমুক্তের এ ঘটনা এলাকায় ব্যাপক আলোচিতের ঘটনায় পরিণত হয়েছে। জানা যায়, বৃহত্তর বারবাকিয়ার চেয়ারম্যান থাকাকালে পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রয়াত সভাপতি জননন্দিত জননেতা মরহুম ছাদেকুর রহমান ওয়ারেচী উপজেলার শিলখালীতে বারবাকিয়া মৌজার লম্বামোরা এলাকায় জে.এল নং-০৫, বি.এস খতিয়ান নং-০২র’ ১৮৩৫৬নং বিএস খতিয়ান ভুক্ত ০৫একর ২৪শতক জায়গায় গ্রামের ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের কসাইপাড়া হইতে লম্বামুরা মহল্লায় বসবাসরতদের জন্য পাড়ালিয়া সামাজিক গণকবরস্থানের ঠিকানা গড়েন। পরবর্তীতে বারবাকিয়া হতে শিলখালী পৃথক ইউনিয়নে রূপান্তর হলে স্থানীয় বর্তমান শিলখালী ইউপি চেয়ারম্যানের বিশ^স্ত প্রভাবশালী লোকজনের লোলুপ জবর দখলের দৃষ্টি পড়ে ওই বিশাল কবরস্থানের জায়গায়। এক পর্যায়ে অভিযুক্ত প্রভাবশালীরা স্থানীয় চেয়ারম্যানের আস্কারা ইন্দনে ধীরে ধীরে এ গণকবরস্থানের জায়গা জবর দখলের মহোৎসবে মাতেন। এতে বেকায়দায় পড়েন ওই এলাকার শত শত হতদরিদ্র অসহায় পরিবারের লোকজন। বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভুগীরা একাধিকবার চেষ্টা তদবির উদ্যোগ নিলেও কবরস্থানের জায়গা পূনরূদ্ধারতো দূরে থাক উল্টো নানা জুট ঝামেলার রোষানলের শিকার হতেন বলে জনশ্রুতি অভিযোগ উঠে। সম্প্রতি বিষয়টি পেকুয়া উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও শিলখালী আওয়ামীলীগের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান ওয়ারেচীর দৃষ্টিতে তুলে ধরে হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকাবাসী। উক্ত অভিযোগ সূত্রে তিনি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের জরুরী সভা তলব করে বিষয়টি নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনাক্রমে নানা সিদ্ধান্ত কর্মসূচী গ্রহন করেন। পরে, গত ২নভেম্বর বুধবার সকাল ১০টায় উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও শিলখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান ওয়ারেচীর নেতৃত্বে শতাধিক স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা বেদখল হওয়া কবরস্থান সরোজমিন পরিদর্শনে গিয়ে তৎবিষয়ে খোঁজ খবর নেন। এসময় তারা উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের লম্বামুরায় প্রায় ১২-১৩কানি আয়তনের বিশাল গণকবরস্থানের জায়গায় বিস্তির্ণ অংশে স্থানীয় প্রভাবশালী লোকজন কর্তৃক জবর দখল ও অবৈধ স্থাপনা নির্মানের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ, বিষ্ময় প্রকাশ করে ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানান। সে সময় দখলবাজদের তালিকা প্রনয়ন করে জড়িতদের তলবের মাধ্যমে কারণ দর্শান ও বিস্তর পদক্ষেপ গ্রহন করেন। যার ধারাবাহিকতায় সাম্প্রতিক সময়ে কয়েকদফা মাপ জোপ করে কবরস্থানের সীমানা পিলার স্থাপন সম্পন্ন করেন। উপজেলার শিলখালীতে পাড়ালিয়া সামাজিক গণকবরস্থানের জায়গা জবর দখলমুক্তে সার্বিক সহায়তায় ছিলেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সংগঠক জননেতা রিদুয়ান নাজেরী, বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম. বেলাল উদ্দিন আহমদ, সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ কাজিউল ইনসান, প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা নেজাত মুহাম্মদ, বশির আহমদ প্রকাশ বশির মালিক, শিলখালী ইউপি’র সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান-১ আ’লীগ নেতা মোঃ নুরুল আলম, শিলখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক সাংবাদিক এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী, প্রাক্তন মেম্বার মোঃ আবু তাহের লাল মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্বাস উদ্দিন ফরায়েজী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, প্রচার সম্পাদক সোনা মিয়া, স্কুল ষ্টেশনের আ’লীগ নেতা ছৈয়দ আলম, সাবেক মেম্বার নবাগত আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ নুরুল আমিন, ১নং ওযার্ডের বর্তমান নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি জামাল হোসাইন জানু এমইউপি, ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার মৌলভী মোঃ আবদুল খালেক মালেকি এমইউপি, বারবাকিয়ার মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম এমইউপি, শেকাব উদ্দিন, আওয়ামীলীগ নেতা ওসমান, শিলখালী ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি শেখ ফরিদ, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা এম. বাহাদুল করিম, মোঃ মুজিব, জাহাঙ্গীর সওদাগর, আবদুল মালেক, ওসমান বাবুর্চি, আবুল ফজল, দুলাল, মঞ্জুর, মোঃ হাসন লেডু, শাহ আলম সর্দ্দার, চৌকিদার আবদুল মালেক ও চৌকিদার ছাবের আহমদ প্রমুখ। এদিকে, দীর্ঘ কয়েক যূগ সময়ে বেদখল হওয়া শিলখালী লম্বামুরার পাড়ালিয়া সামাজিক গণকবরস্থানের জায়গা জবর দখল মুক্তের ঘটনায় সচেতন ও সাধারণ মানূষ এলাকার বর্তমান আওয়ামীলীগের নেতৃস্থানীয়দের প্রশংসায় পঞ্চমুখে মন্তব্য করেন যে, ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করলে যে কোন সমস্যার সমাধান সময়ের ব্যাপার মাত্র।