উখিয়ায় দু্ই ব্যক্তির বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে আদালতে মামলা

mamla-logo.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া |
কক্সবাজারের উখিয়ায় অনলাইন পত্রিকা উখিয়া ক্রাইম নিউজ সম্পাদকের নিকট থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম তথা ফেইজ বুকে ছবি বিকৃত পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকার অশ্লীল ভাষায় সংবাদ পোষ্ট করায় দুই প্রতারক আব্দুর রহিম সেলিম ও তার সহযোগী তানবির শাহারিয়ার প্রকাশ তানবিরের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে কক্সবাজার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য উখিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ প্রদান করেছেন।
মামলার সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি উখিয়ায় ১৫ আগষ্টের কাঙ্গালী ভোজের বিষ মামলার অন্যতম আসামী উখিয়ার মালভিটা পাড়া গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আহম্মদের ছেলে আব্দুর রহিম এর প্ররোচনায় ২ নং আসামী রাজাপালং ইউনিয়নের মহুরী পাড়া গ্রামের রুহুল আমিন মেম্বারের ছেলে তানবির শাহরিয়া প্রকাশ তানবির গত ১০ সেপ্টেম্বর উখিয়া ক্রাইম নিউজ অফিসে গিয়ে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন। এবং তাদের কথায় প্রতিবাদ করলে আসামীরা চরম ভাবে ক্ষুব্দ হয়ে হাকাবকা করে এবং উখিয়া ক্রাইম নিউজের সম্পাদক মাহমুদুল হক বাবুল কে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তথা ফেইজ বুকে বিকৃত ছবি ও পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকার অশ্লীল ভাষায় গালি গালাজ করে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। তাদের চাহিদা মত চাঁদা দিতে না পারায় ২৬ অক্টোবর ও ৬ নভেম্বর ফেইজ বুক আইডি তানবির উখিয়াতে পত্রিকার সম্পাদকের দুইটি বিকৃত ছবি পোষ্ট করে। শুধু তাই নয়, মামলার বাদীর পিতা, শশুর, নিজের স্ত্রীর বিষয়ে চরম ভাবে অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে তারা। যার ফলে বাদীর ৫০ লাখ টাকার মানহানি সহ আতœ সম্মানের ব্যাপক ক্ষতি হয়। পরে গত ৯ নভেম্বর কক্সবাজার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে উখিয়া ক্রাইম নিউজ সম্পাদক মাহমুদুল হক বাবুল বাদী হয়ে গত ১০ নভেম্বর কক্সবাজার বিজ্ঞ আদালতে তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। উল্লেখ্য, ১ নং আসামী উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের মালভিটা পাড়া গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আহম্মদের ছেলে আব্দুর রহিম সেলিমের বিরুদ্ধে ১৫ আগষ্ট ১৯৯৮ সনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহদাত বাষিকীতে উখিয়া উচ্চ বিদ্যালয় প্রঙ্গনে আয়োজিত কাঙ্গালী ভোজের ডেকসিতে বিষ মিশিয়ে গণ হারে মানুষ হত্যার চেষ্টার মামলাও তার বিরুদ্ধে রয়েছে। যার মামলা নংÑ ৫। সহকারী কমিশনার (ভুমি), জাহাঙ্গীর আলম কে নাজেহাল ও সম্মানহানী করেছিল। যার মামলা নংÑ ৫, তারিখঃ ০৮/০১/০২ ইং। সহকারী কমিশন (ভুমি), জাহাঙ্গীর আলম কে তার বিরুদ্ধে মামলা করার অপরাধে কাফনের কাপড় প্রেরণ করে হুমকি প্রদর্শন। যার মামলা নংÑ ২৮৯। ৮/১/২০০২ ইং। উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের চাকবৈঠা গ্রামে অশ্লীল নাচ গানের আসরে পুলিশের উপর হামলার মামলা নংÑ ০১। তারিখঃ ১/২/২০০৩। রুমখা হাতির ঘোনা এলাকার কলমি প্রভা বড়–য়া কে হুমকি ও অপরাধজনক ভয়ভীতি প্রদর্শন করায় মামলা। যার মামলা নংÑ ৯৩/১০, তারিখঃ ৩/৬/২০১০ ইং। জসিম উদ্দিন চৌধুরী (বি এ এম) উপজেলা আনসার কোম্পানী কমান্ডার কে মানহানি করায় মামলা। যার মামলা নংÑ ২৬৪/২০১০। তুতুরবিল গ্রামের সেনা সার্জেন্ট অবঃ ও তার ছেলে কে কোপাইয়া গুরুতর জখম করার মামলা। যার নংÑ ১০১/২০১২। মোঃ হারুনের বিরুদ্ধে মানহানিকর সংবাদ পরিবেশন করার মামলা ৮৪/২০০৬ সহ থানা বা আদালতে ডজন খানিক মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে।