সেন্টমার্টিন সাগর থেকে ১টি ফিশিং ট্রলারসহ ৫ মাঝি-মাল্লাকে ধরে নিয়ে নিয়ে গেছে বিজিপি : সীমান্তে মিয়ানমার নৌবাহিনী জাহাজের টহল

tt666666.jpg

নয়ন বর্মন, সেন্টমার্টিন থেকে |
সেন্টমার্টিনে বঙ্গোপসাগর থেকে একটি ফিশিং ট্রলারসহ ৫ মাঝি-মাল্লাকে আটক করে নিয়ে গেছে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। বুধবার (৯ নভেম্বর) বেলা দেড়টার দিকে সেন্টমার্টিনের আনুমানিক ২ কিলোমিটার দক্ষিনপূর্ব দিকে সাগরে মাছ শিকারের সময় উক্ত ট্রলারটি আটক করে নিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন ট্রলার মালিক সেন্টমার্টিন কোনারপাড়ার মৃত জাফর আহমদের ছেলে নাসির উদ্দিন।
কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লে. নাফিউর রহমান সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি তিনি অবগত হওয়ার পর মিয়ানমারের সাথে যোগাযোগের জন্য বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি কর্তৃপক্ষের কাছে জানানো হয়েছে।
অপরদিকে টেকনাফস্থ বিজিবি ২ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল আবুজার আল জাহিদ জানান, কোস্টগার্ডের কাছ থেকে বিষয়টি জানার পর দোভাষীর মাধ্যমে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি। পরবর্তীতে ফিশিং ট্রলারসহ জেলেদের ছেড়ে দেওয়ার জন্য ইমেইলে লিখিত বার্তা পাঠানো হয়েছে।
আটক করে নিয়ে যাওয়া উক্ত জেলেরা হচ্ছে, ট্রলারের মাঝি সেন্টমার্টিন কোনার পাড়ার বাসিন্দা শাইর আহমদের ছেলে আব্দুল হামিদ মাঝি (৩৫), অছিউর রহমানের ছেলে ফজল আহমদ(৪২), অলি চানের ছেলে হাসিম(৪৫), দক্ষিণ পাড়ার লাল মিয়ার ছেলে সাদ্দাম(২৫), মোহাম্মদ ইসমাঈলের ছেলে মোঃ হোছাইন(২৫)।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুর রব জানান, ধরে নিয়ে যাওয়া জেলেরা সবাই সেন্টমার্টিনের স্থায়ী বাসিন্দা। এ ঘটনায় মাঝি মাল্লাদের পরিবারে উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে বলে জানান তিনি।
এদিকে বুধবার বিকালে মিয়ানমার সীমান্তে সেদেশের নৌবাহিনী জাহাজের টহল দিতে দেখা গেছে বলে জানিয়েছেন সেন্টমার্টিনের বাসিন্দারা।