প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য গর্জনিয়ায় সেই নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

unnamed-14.jpg

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ নাইক্ষ্যংছড়ি :
কক্সবাজারের রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের সাবেক বিতর্কিত চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। সোমবার (৭নভেম্বর) দুপুরে বিদ্যালয় সংলগ্ন স¤্রাট শাহ সূজা সড়কে এ কর্মসূচী পালিত হয়। এক ঘন্টা ব্যাপি মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে কয়েক শ ছাত্র-ছাত্রী ‘নুরুল আমিনর কোম্পানির গালে গালে, জুতা মার তালে তালে’ ‘আমাদের হেড স্যারের কিছু হলে, জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’ তাঁর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য, প্রত্যাহার করতে হবে’ সহ নানা শ্লোগান দেন।
বিক্ষোভ সমাবেশে গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার ক্যাম্পাস কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল বলেন, একজন প্রধান শিক্ষকের মর্যদা ক্ষুন্ন করে অশিক্ষিত নুরুল আমিন বড়ই ভুল করেছে। এ ঘটনায় আমরা হতাশ ও মর্মাহত। অবিলম্বে আমরা তাঁর এ ধরণের অযৌক্তিক বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।
বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির নাহিদা আক্তার বলেন, প্রধান শিক্ষক বাবার মতো। তিনি গুরুজন। উনার অসম্মান মানে আমাদের অসম্মান। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।
একই শ্রেণির তুষার শর্মা বলেন, গত নির্বাচনে নুরুল আমিনকে জনগণ বয়কট করেছে। তাঁর বিরুদ্ধে মানবপাচার, নারী ব্যবসা, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জমি দখল, সার পাচার, পাহাড় কেটে পরিবেশের ক্ষতিসাধন, নারী এনজিও কর্মীকে মারধর, রেঞ্চ কর্মকর্তা এবং সাংবাদিককে লাঞ্ছিতসহ নানা অভিযোগ আমরা পত্রপত্রিকায় পড়েছি। এমন খারাপ লোক কিভাবে একজন প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির বিরুদ্ধে অশালীন বক্তব্য রাখতে পারে! এটাই আমাদের প্রশ্ন?
উল্লেখ্য, গত শনিবার (৫মে) গর্জনিয়া বাজার এলাকায় সকাল ১১টায় কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের রাজপথে নামিয়ে অত্র বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন এক কথিত প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেন। ওই সভায় তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এএইচএম মনিরুল ইসলাম ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, গর্জনিয়া ইউপির পাঁচ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীকে উলঙ্গ করে মারধরের হুমকি দেন। এবং তাঁদেরকে কচ্ছপিয়ার মানুষ যেন জুতাপেঠা করে সে আবদারও করে বসেন! এ ধরণের একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে সর্বত্র তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়। নুরুল আমিন কোম্পানির প্রতি জন্ম হতে থাকে ঘৃণা আর ঘৃণা। তাঁর এমন বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাওয়ার দাবি উঠেছে গর্জনিয়া ও কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন মহলে।
কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয় সূত্র জানায়, অত্র বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপনের বিরুদ্ধে গর্জনিয়া উচ্চবিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ষড়যন্ত্র করছে। এর নিন্দা জানাতে প্রতিবাদ সভা করা হয়েছিল। অন্যদিকে গর্জনিয়া উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের শিক্ষক প্রতিনিধি সুকুমার বড়–য়া বলেন, ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীন গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন যখন চূড়ান্ত পর্যায়ে, তখনই নুরুল আমিন কোম্পানি অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টির পায়তারা করছে। সে শিক্ষা ব্যবস্থাকেই বিতর্কিত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আর কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়ে নিয়ম অনুযায়ী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। এটা নিয়ে অন্যজনকে দায়ি করে প্রতিবাদ সভা করলে কিছুই হবে না।