টেকনাফে জেএসসি-জেডিসি পরিক্ষা শুরু, চলছে সুষ্ঠুভাবে

333333.jpg

টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে তোলা ছবি

রাশেদ মাহমুদ রাসেল, টেকনাফ |
সারাদেশের ন্যায় টেকনাফে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। টেকনাফের ৪টি কেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা চলছে।
প্রথম দিন জেএসসি পরীক্ষার্থীদের বাংলা ও জেডিসিতে কোরআন মজিদ ও তাজবিদ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শফিউল আলম সকালে পরীক্ষার কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এইবার টেকনাফে নিয়মিত ও অনিয়মিতসহ এবারে মোট পরিক্ষার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ২৮৮ জন। তম্মধ্যে জেএসসিতে ১৯টি মাধ্যমিক স্কুলের পরিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৬৭৩ জন এবং জেডিসিতে ১০টি মাদ্রাসার ৬১৫ জন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, এ বছর ২৮ হাজার ৭৬১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

জেএসসিতে পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৩৮ হাজার ৩০৩ জন। এর মধ্যে ৯ লাখ ৪৯ হাজার ১৪৫ জন ছেলে এবং ১০ লাখ ৭৫ হাজার ২২৮ জন মেয়ে।

অন্যদিকে, জেডিসিতে পরীক্ষার্থী ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৪৭২ জন। এর মধ্যে ১ লাখ ৭৫ হাজার ২২৮জন ছাত্র এবং ১ লাখ ৯৯ হাজার ২৪৪ জন ছাত্রী।

এছাড়াও, বিদেশের ৮টি কেন্দ্র থেকে ৬৮১ জন শিক্ষার্থী এবারের জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

গত বছরের তুলনায় এবার এ দুটি পরীক্ষায় মোট শিক্ষার্থী বেড়েছে ৮৬ হাজার ৮৪২ জন। এ বছর ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেবে। গত বছর পরীক্ষার্থী ছিল ২৩ লাখ ২৫ হাজার ৯৩৩ জন।

আগামী ১৭ নভেম্বর পরীক্ষা শেষ হবে।ফলাফল ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে দেয়ার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

টেকনাফ :
টেকনাফে জেএসসির কেন্দ্রগুলো হচ্ছে টেকনাফ পাইলট হাইস্কুল, টেকনাফ এজাহার গার্লস হাইস্কুল ও হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী-আছিয়া হাইস্কুল। আর ১টি মাত্র মাদ্রাসা কেন্দ্র হচ্ছে রঙ্গীখালী দারুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসা। গত বছর মোট পরিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৮৫ জন।

টেকনাফ উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মোঃ নুরুল আবছার জানান টেকনাফ পাইলট হাইস্কুল ১নং কেন্দ্রে হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী-আছিয়া হাইস্কুল, টেকনাফ এজাহার গার্লস হাইস্কুল, শাহপরীরদ্বীপ হাজী বশির আহমদ হাইস্কুল, নয়াপাড়া হাজী নবী হোসেন হাইস্কুল, লম্বরী মলকাবানু হাইস্কুল বিজিবি-পাবলিক এই ৬টি হাইস্কুলের ৪৮৭ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষা দেবে। প্রধান শিক্ষক নুর হোসেন কেন্দ্র সচিব এবং লম্বরী মলকাবানু হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইসমাইল হল তত্ববধায়ক ও উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার এনামুল হক অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

টেকনাফ এজাহার গার্লস হাইস্কুল ২নং কেন্দ্রে টেকনাফ পাইলট হাইস্কুল, মারিশবনিয়া হাইস্কুল, সাবরাং হাইস্কুল, সেন্টমার্টিনদ্বীপ বিএন ইসলামিক হাইস্কুল, পল্লানপাড়া সরকারী প্রাইমারী স্কুল এই ৫টি হাইস্কুলের ৪৬৯ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষা দেবে। সাবরাং হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মুফিজ উদ দৌলা কেন্দ্র সচিব এবং মারিষবনিয়া হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক হল তত্ববধায়ক ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার মোঃ আলমগীর কবির অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী-আছিয়া হাইস্কুল ৩নং কেন্দ্রে হ্নীলা হাইস্কুল, হ্নীলা গার্লস হাইস্কুল, লেদা জুনিয়র হাইস্কুল, নয়াবাজার হাইস্কুল, নাইক্ষংখালী জুনিয়র হাইস্কুল, কাঞ্জরপাড়া জুনিয়র হাইস্কুল, শামলাপুর হাইস্কুল এই ৮টি হাইস্কুলের ৭১৭ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষা দেবে। প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মোস্তফা কামাল চৌধুরী মুসা কেন্দ্র সচিব এবং কাঞ্জরপাড়া জুনিয়র হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম হল তত্ববধায়ক ও উপজেলা সমবায় অফিসার শামসুল আলম কুতুবী অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

১টি মাত্র জেডিসি মাদ্রাসা কেন্দ্র হ্নীলা রঙ্গীখালী দারুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে উপজেলার সকল মাধ্যমিক স্তরের ১০টি মাদ্রাসার ৬১৫ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষা দেবে। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ কামাল হোছাইন কেন্দ্র সচিব এবং জমিরিয়া দারুল কুরআন সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ ফরিদুল আলম হল তত্ববধায়ক ও উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মোঃ নুরুল আবছার অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন। তাছাড়া প্রতি ২০ জন পরিক্ষার্থীর জন্য ১ জন করে কক্ষ পর্যবেক্ষক থাকবেন বলে জানা গেছে।

সহকারী কমিশণার (ভুমি), উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার, টেকনাফ মডেল থানার ওসি এবং মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নিয়ে ৪ সদস্য বিশিষ্ট ভিজিল্যান্স টিম গঠন ও ৪টি কেন্দ্র কমিটি গঠন ছাড়াও সুষ্ট-সুন্দরভাবে পরিক্ষা অনুষ্টানের জন্য ইতিমধ্যেই উপজেলা প্রশাসন যাবতীয় প্রস্ততি সম্পন্ন করেছেন।