উখিয়ায় গর্ভবতি নারীকে নির্যাতন

Hamla-1.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া |
কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের তাজনিমার খোলা গ্রামের গর্ভবতি মহিলা কে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি পিঠিয়ে গুরুতর আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সাথে বাধা দিতে গিয়ে তাজর মূল্লক নামের এক ব্যক্তিকে দা দিয়ে কু’পিয়ে আহত করে। তাদের কে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কক্সবাজার সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি সি আর মামলা করা হয়েছে। একই এলাকার জাহাঙ্গীর আলম ও আকতার কামাল দা- লাঠি সোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করলে গত ৩০ অক্টোবর আকতার কামাল ও জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে তাজর মূলক বাদী হয়ে একটি সি আর মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ৩১৮/১৬ ইং। তারা আদালতে মামলা করাই গত রোববার সকালে তাজের মূলকের বসত ভিটায় ৩০ হাজার টাকার বাস, ৫ টি তোলা গাছ ও সুপারী গাছ সহ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে।

সোমবার আদালতের নির্দেশে উখিয়া থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক আবুল কালাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তাজের মূলক অভিযোগ করে বলেন, সন্ত্রাসীরা লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে। শুধু তাই নয়, আমার স্ত্রী ৭ মাসের গর্ভবতি মহিলা ছায়েরা বেগম কে তলপেঠে লাথি মারে। ওই সময় ছৈয়দ নুরের স্ত্রী শাহেনা বেগম কে ও সন্ত্রাসীরা হামলা করে গুরুতর আহত করে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের বলেন, ঘটনাস্থল তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে আকতার কামাল ও জাহাঙ্গীর আলমের সাথে যোগাযোগ করিলে ঘটনা সত্য নয় বলে জানান।