টেকনাফ হাসপাতালে একযুগ পরে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি প্রকল্পের সহযোগীতায় চালু হল অপারেশন থিয়েটার

unnamed-3-Copy.jpg

সাইফুদ্দীন মোহাম্মদ মামুন, টেকনাফ |

টেকনাফ হাসপাতালে একযুগ পরে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সহযোগীতায় আবারো চালু হল অপারেশন থিয়েটার। সীমান্তের শহর এই টেকনাফের সাধারণ মানুষগুলোকে নির্ভর করতে হয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপর। নির্ভরশীল সমুদ্র পরিবেষ্টিত উপকূলীয়, দ্বীপ এলাকা ও বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে দুর-দুরান্তের লোকজন এখানে চিকিৎসা নিতে আসে। তাছাড়া একযুগ আগে হাসপাতালটির অপারেশন থিয়েটারে বিভিন্ন সমস্যা যেমনঃ পানি, বিদুৎ লাইন সমস্যাসহ আরো বিভিন্ন সমস্যার কারণে ওটি’টি চালু করা সম্ভব হয়নি।পরবর্তীতে বাংলাদের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি হেলথ কেয়ার প্রকল্পের সহযোগীতায় এবং টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরএমওর আন্তরিক প্রচেষ্টায় ওটি’টি পুনরায় চালু হয়ে ২৯ অক্টোবর চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজের শিশু সার্জারী বিভাগের কনসালট্যান্ট গোলাম হাবীব ময়না ও তার দল সকাল ১০টা থেকে চিকিৎসা শুরু করে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সর্বমোট ২০টি শিশুর মাইনর সার্জারী সম্পন্ন করেন।
এ ব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুমন বড়ুয়া বলেন, একযুগ পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট প্রকল্প সোসাইটির সহযোগীতায় সার্জারী চালু হয়েছে।যা টেকনাফবাসীর জন্য এক বিরাট পাওয়া।
ওটি’টি চালু থাকলে টেকনাফ উপজেলার জনসাধারণের জন্য একটি নতুন ধার উন্মোচন হবে বলে মনে করেন টেকনাফবাসী ও সচেতনমহল।