হ্নীলা বাসষ্টেশনে তীব্র যানজটে অতিষ্ঠ সাধারণ মানুষ!

unnamed-3-4.jpg

মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, টেকনাফ |
হ্নীলা বাসষ্টেশনের যানজট নিয়ন্ত্রণের কেউ না থাকায় ভোগান্তিতে পড়ে অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে যাত্রী ও সাধারণ মানুষ। বিষয়টি খতিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগীরা।
তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়-উপজেলার হ্নীলা বাসষ্টেশন কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের একটি অন্যতম পয়েন্ট। এই ষ্টেশনে দূরপাল্লাগামী যানবাহনের বিভিন্ন কাউন্টারের পাশাপাশি স্থানীয় যানবাহনের নিয়ন্ত্রণহীন কর্মকান্ডে প্রতিদিন তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এই যানজটের কবলে পড়ে দূরপাল্লার যাত্রী, সরকারী-বেসরকারী চাকরীজীবি, সাধারণ মানুষ এমনকি চালকেরা পর্যন্ত অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে।
সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, ষ্টেশনের প্রধান সড়কের পাশ ঘেঁষেই অসংখ্য অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে। এসব কারণে স্থানীয় যানবাহন জীপ, সিএনজি, মাহিন্দ্রা, টমটম, অটোরিক্সা, মাইক্রো নির্দিষ্ট জায়গায় অবস্থান না নিয়ে, যার যেখানে খুশি; সেখানেই পার্কিং করায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।
এই কাজে সিএনজি, মাহিন্দ্রা ও টমটমের মনগড়া আচরণে আকস্মিকভাবে মানুষ যানজটের কবলে পড়ে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। কিন্তু এসব নিয়ন্ত্রণের কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান না থাকায় এই ভোগান্তির শেষ হচ্ছেনা। ভোগান্তি থেকে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা পর্যন্ত রেহাই পাচ্ছেনা।
এমনই ভোগান্তি থেকে পরিত্রাণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরসহ উপজেলা প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ প্রয়োজন।স্থানীয় সচেতন মহলের মতে এই ষ্টেশনের উত্তর-দক্ষিণ পার্শ্বে গাড়ি পার্কিং ও কাউন্টারের জন্য যথেষ্ট স্থান থাকা সত্বেও তা অগ্রাহ্য করে যত্রতত্র স্থানে যাত্রী উঠা-নামা করায় এই যানজট দিন দিন প্রকট আকার ধারণ করছে। স্থানীয়দের দাবী উভয়পার্শ্বের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের যান চলাচল স্বাভাবিক করতে এখনই পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন।