টেকনাফের বাহারছড়ায় জামায়াত নেতার পুত্র জাকেরের বিরুদ্ধে লাঠিয়াল বাহিনী দিয়ে ভূমি জবর দখলের অভিযোগ

logo-ovijog13.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
টেকনাফের বাহার ছড়ার দক্ষিন শিলখালীর জামায়াত নেতা হাফেজ সাইফুল্লাহর পুত্র জাকের উল্লাহর নেতৃত্বে ৩০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে বাহার ছড়ার হাছন আলী, এজাহার মিয়া, জাহানারার মালিকানাধীন ৮০ শতক জমি দখল করে রেখেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল (২৩ অক্টোবর রোব বার) সকাল ৮ টায় দিন দুপুরে লাঠিয়াল ও অস্ত্রধারী বাহিনী দখল বাণিজ্য সম্পন্ন করে।
জানা যায়, টেকনাফের ৫ নং বাহার ছড়া ইউনিয়নের শিল খালী মোৗজার ৮১৭ নং খতিয়ানের বিএস-৬০৩০ দাগের আন্দর-৮০ শতক জমি ক্রয় করে জাকের উল্লাহর ভাই। উক্ত দাগ হতে ৫১ শতকের একটি খতিয়ান সৃজিত হয়। ২৪৬৩ নং সৃজিত খতিয়ানে ৫১ শতক জমি রেকর্ড হলেও জাকের উল্লাহ গং জোর করে প্রায় ৮০ শতকের চেয়ে বেশি জমি লাঠিয়াল বাহিনী দিয়ে দখল করে নেয়।
জমি দাতা হাছন আলী, এজাহার মিয়া, জাহানারার ওয়ারিশ গন জানান, নামজারী খতিয়ানের বাহিরে গিয়ে জমি মালিক পক্ষ কে হুমকি,ধমকি দিয়ে অবৈধ টাকার প্রভাব খাটিয়ে বেআইনি ভাবে জমি জবর দখ করে নেয় জাকের বাহিনী।
এলাকাবাসী জানান, জাকের উল্লাহর বিরুদ্ধে ভূমি দস্যুতা,ওয়ারশি গোপন করে জোর পূর্বক জমি জবর দখল ও ইয়াবা পাচারের গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইয়াবা ব্যাবসা করে রাতারাতি কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেছে উক্ত জাকের। তার বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর থানায় একটি ইয়াবার মামলা রয়েছে। উক্ত মামলায় জাকের দীর্ঘদিন কারাভোগ ও করেন বলে জানান এলাকাবাসী। এব্যাপারে অভিযুক্ত জাকের উল্লাহর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জোর করে জমি জবর দখলের বিষয় অস্বীকার করলেও ইয়াবার মামলা কথা স্বীকার করে জানান, হাঁ আমার বিরুদ্ধে ইয়াবার মামলা আছে। বিষয় টি আমার প্রতিপক্ষ পরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে আমাকে জড়িয়েছিল। জাকের এর ভয়েস রেকর্ডে তিনি ইয়ার বিষয় স্বীকার করেন।