হ্নীলায় জোরপূর্বক জমি জবর দখলে নেওয়ার অভিযোগ

unnamed-1-4.jpg

মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, টেকনাফ |
হ্নীলায় প্রভাবশালী কর্তৃক এক বিধবা মহিলার জমি জবর দখলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিকার চেয়ে এই ব্যাপারে থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।
গত ২২অক্টোবর থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়-চলতি মাসের গত ১০ অক্টোবর উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নাইক্ষ্যংখালী মৃত জাফর আলমের স্ত্রী বানুবিবির (৫৫) মালিকানাধীন দক্ষিণ হ্নীলা মৌজার আরএস ১৭৯৫নং খতিয়ানের আরএস নং-৪৩৩,৪৫৬,৪৫৭,৪৫৮/১২২৮, ৪৬৬,৪৬৭,৪৬৮,৪৬৯,৪৭০,৪৭১ ও ৪৭৫ দাগাদির আন্দরে ৪৫কড়া জমির মালিক হন। একই এলাকার মৃত নজির আহমদের পুত্র আব্দুর রহমান,আব্দুর রহমানের পুত্র আবুল হোসেন,আব্দুর রহমানের স্ত্রী ফাতেমা বেগম,মৃত নজির আহমদের পুত্র আব্দুল সোবহান প্রকাশ জাকের,শফিক আহমদ ও আব্দুর রহমানের পুত্র খালেক হোছনসহ একটি প্রভাবশালী চক্র লোভের বশীভূত হয়ে বানুবিবির জমিতে সীমানা পিলার তুলে জবর দখলে নিতে গেলে বিধবা বানুবিবি বাঁধা প্রদান করায় মারধর করতে আসে। উপস্থিত স্থানীয় লোকজন তাকে কোন প্রকারে প্রাণে রক্ষা করেন। এরপর উৎশৃংখল প্রকৃতির বিবাদীরা রক্ত বা প্রাণের বিনিময়ে হলেও এই জমি জবর দখলের হুমকি দিয়ে যায়। তারপরও তারা সীমানা পিলার তৈরী করে জবর দখলে নেওয়ার প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছে। এমতাবস্থায় বাঁধা দিতে গেলে রক্তপাত বা প্রাণহানির আশংকা দেখা দিয়েছে। তাই উক্ত বিধবা মহিলার জমি জবর দখলের হাত রক্ষার প্রতিকার চেয়ে টেকনাফ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যা এসআই মফিদুল ইসলামের নিকট তদন্তাধীন রয়েছে। এই ব্যাপারে স্থানীয় ফরিদুল আলম মেম্বারের নিকট জানতে চাইলে বিধবার জমি জবর দখলের বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করেন।
ভূক্তভোগী বিধবা বানুবিবি নিজের মালিকানাধীন জমি জবর দখলের হাত থেকে রক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।