টেকনাফ সী-বীচ সড়কের বেহাল দশা

Teknaf-picsea-beach-road_18.10-Copy.jpg

টেকনাফ টুডে ডটকম |
টেকনাফ সীবীচ সড়কটি সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের শেষ প্রান্ত হচ্ছে এই টেকনাফ সৈকত, তাই প্রতিদিন দেশী-বিদেশী অনেক পর্যটক টেকনাফ সমুদ্র সৈকত দর্শনে আসেন। এছাড়া টেকনাফের স্থানীয় বাসিন্দাদেরও পছন্দের ভ্রমণের স্থান এই সৈকত। শুধু তাই নই সৈকত দর্শনার্থী ছাড়াও টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৮টি গ্রামের ২০ হাজারের বেশী মানুষের যাতায়াত এই সড়ক দিয়ে। কিন্তু টেকনাফ শাপলা চত্বর হতে মহেষখালীয়া পাড়া সৈকত পর্যন্ত টেকনাফ সৈকতে যাওয়ার একমাত্র সড়কটির বেহাল দশার কারনে ভ্রমণের আনন্দ হয়ে পড়ে কষ্টদায়ক।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, টেকনাফ সীবীচ সড়কটির দায়িত্ব স্থানীয় সরকার বিভাগের (এলজিইডি) অধীনে ন্যস্থ রয়েছে।
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, বেশ কয়েক বছর আগে সড়কটি সংস্কার করা হয়েছিল। তবে চলতি বছর মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাজে বালু পরিবহনে ন্যস্থ ভারী যানবাহনের চলাচলে সড়কটি দ্রুত নষ্ট হয়ে পড়েছে।
টেকনাফ সদর ইউনিয়নের গোদারবিল এলাকার বাসিন্দা ফজল আহমদ জানান, ভাঙ্গা ও সরু সড়কের কারনে প্রায় চোখের সামনে দূর্ঘটনা ঘটে থাকে।
এব্যাপারে টেকনাফ এলজিইডি উপজেলা প্রকৌশলী আবসার উদ্দিন জানান, প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার টেকনাফ সীবীচ সড়কটি সংস্কার ও উন্নয়নে ৩ কোটি টাকার দুটি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। শীঘ্রই তা অনুমোদন হয়ে গেলে আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত সড়ক সংস্কার কাজ শুরু করা হবে বলে জানান তিনি।