মাদ্রাসার উন্নয়নে যা যা প্রয়োজন সবই করা হবে

Pic-Mohes-madra.jpg

মহেশখালী আহমদিয়া তৈয়্যবিয়া সুন্নীয়া দাখিল মাদ্রাসায় বিশেষ মতবিনিময় সভায় বক্তারা
নিজস্ব প্রতিবেদক |
মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালী আহমদিয়া তৈয়্যবিয়া সুন্নিয়া দাখিল মাদরাসায় বিশেষ মতবিনিময় সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা বলেছেন, মাদ্রাসার উন্নয়নে যা যা প্রয়োজন সবিই সকলের সহযোগিতা ও সরকারী অনুদানে সম্পন্ন করা হবে। অত্র মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যবধি উপজেলাসহ জেলাব্যাপী সার্বিক ফলাফল ও প্রায় সাড়ে ১২ শ শিক্ষার্থী এবং ১৯ জন সুদক্ষ শিক্ষক মন্ডলী দ্ধারা পরিচালিত হয়ে আসছে। তাই মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সকল সদস্য, দাতা সদস্য ও এখন থেকে আন্জুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টে অধিভুক্ত হয়ে আগামীতে আরো ব্যাপক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি অর্জন করার বিষদ গুরোত্বারোপ করা হয়।
১৮ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে সিনিয়র সহকারী মাওলানা আবদুস সাত্তারের পরিচালনায় আনজুমানে-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টে অত্র মাদ্রাসা অধিভুক্তকরণের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভা ও দোয়া মাহফিলে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, অত্র মাদ্রাসার সুপার মো: ছিদ্দিক আজাদ।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, আনজুমানে-এ- রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের জেনারেল সেক্রেটারী আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন চৌধুরী। তিনি বলেন, কোন আমলেই কোন অবস্থাতেই ইসলাম কখনো মানুষ হত্যাকে সমর্থন করে না। সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য কারীরা দেশ ও জাতীর শত্রু। এদের সমাজে প্রতিটি স্থর থেকে প্রতিহত করতে হবে। তিনি অত্র মাদ্রাসার ভুয়সী প্রশাংসা করে আরো বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে শুনেছি অত্র মাদ্রাসাটি কোনকারনেই একদিনের জন্যও বন্ধ থাকেনি। সকলের ঐক্যমত ও একান্ত সহযোগিতায় এগিয়ে যাচ্ছে এই দ্বীনি প্রতিষ্ঠানটি। তাই বরাবরই প্রতিবছর দাখিল পরীক্ষাসহ বোর্ড পরীক্ষায় ভাল ফলাফল অর্জনে কৃতিত্বের সাফল্যগাথা গৌরব ধরে রাখছে। আগামেিত সকল শিক্ষক, আনজুমান ট্রাস্ট ও সরকারীভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে এগিয়ে যাবে অত্র মাদ্রাসাটি এবং ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
সভায় অনুষ্টানের সভাপতির বক্তব্যে অত্র মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল কালাম বলেছেন, এই মাদ্রাসার সভাপতি হিসেবে গর্ববোধ করে বলতে পারি, সারাদেশব্যাপী কিছু অপশক্তি ইসলামের নামে হত্যা, গুম, সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছে। কিছু বিপদগামী শিক্ষিত যুবক ধর্মের নাম ব্যবহার করে নিজের পরিবার পরিজনকে কলংকিত করছে। কিছু অর্থের লোভে এমন বিপদগামী কাজ থেকে পরিবার, সমাজ,ও রাষ্ট্রকে রক্ষা করা আগামী প্রজন্মের ছাত্র-ছাত্রীদের অগ্রনী ভূমিকা রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি বাংলাদেশে যে জঙ্গিহামলা হয়েছে তাতে একজনও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা জড়িত নেই। এতেই প্রমানিত ইসলামে এবং মাদ্রাসায় জঙ্গিবাদের কোন স্থান নেই। তিনি এই মাদ্রাসার উন্নয়নে সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, শিক্ষার্থীদের জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত ও ভাল ফলাফল অর্জনে আরো একধাপ এগিয়ে আসতে হবে তাহলে পুরো জেলাজুড়ে ছড়িয়ে পড়বে অত্র মাদ্রাসার সুনাম সুখ্যাতি।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আনজুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের এডিশনাল সেক্রেটারী আলহাজ্ব শামসুদ্দিন, মহেশখালী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ফজলুল করিম, দৈনিক আজকের কক্সবাজার বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব মাও: ছৈয়দ হোছাইন, উপজেলা প্রকৌশলী অফিসার মুহাম্মদ রেজাউল করিম, গাউছিয়া কমিটি মহেশখালী উপজেলা শাখার সভাপতি ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামসুল আলম, সেক্রেটারী আলহাজ্ব মাওলানা শফিউল আলম খাঁন, ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার সুপার মাওলানা শাহাদাত হোছাইন ও একরামুল হক রানা প্রমূখ।
সভায় মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সদস্য, অভিভাবক, শিক্ষক, শিক্ষিকা, কর্মচারী, ছাত্র-ছাত্রী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মাদরাসার প্রতিষ্টাতা মুফতি আবু আরিফ মুহা: লোকমান প্রতিষ্টানের সাফল্য, উত্তরোত্তর উন্নতি এবং দেশ ও জাতীর সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন।
অনুষ্টানে কোরআন তেলাওয়াত করেন ১০ম শ্রেনীর ছাত্র হাবিবুর রহমান, নাতে মোস্তফা (স:) পাঠ করেন মুহাম্মদ শাহাদাত উল্লাহ।