তীব্র লোডশেডিং॥ অতিষ্ঠে টেকনাফ বাহারছড়াবাসী

pollybiddot_2.jpg

ফাইল ছবি

মোজাম্মেল হক বাহার, শামলাপুর |
ভীষন গরম, অবস্থা চরম। এরই মাঝে বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নবাসী। কয়েকদিন ধরে দৈনিক ২৪ ঘন্টায় ৩ ঘন্টাও বিদ্যুৎ থাকছেনা অত্র ইউনিয়নে। পার্শ্ববর্তী উখিয়া জালিয়াপালং ইউনিয়নের মনখালী ছেপটখালীবাসীকেও টেকনাফ পল্লী বিদ্যুতের এ সংযোগ থাকায় একই দশা পোহাতে হচ্ছে। বিদ্যুতের এ তীব্র লোডশেডিং এর ফলে চরম ক্ষতির সম্মুখিন হয়ে পড়েছে ওয়ার্কশপ, কম্পিউটার ও কোমল পাণীয় ব্যবসায়ীরা। মোবাইলের ব্যাটারীতে চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ায় যোগাযোগ ও লেনদেন বন্ধ হয়ে যায় অনেকের। দীর্ঘ সময় বিদ্যুত সংযোগ বন্ধ থাকায় নষ্ট হয়ে যায় ফ্রিজে থাকা বিভিন্ন তরি-তরকারী ও মাছ-মাংস। শুক্রবার জুমুআর নামাজের সময়ও বেশিরভাগ বিদ্যুৎ থাকেনা। সম্প্রতি এসএসসি জেএসসি ও পিএসসির টেষ্ট পরীক্ষা চলছে আর এসএসসি, জেএসসি ও পিএসসির ফাইনাল পরীক্ষা আসন্ন। বিদ্যুতের এ ভেলকিবাজিতে খুব বেশি ব্যঘাত ঘটছে উক্ত পরীক্ষার্থীদের।
এ ব্যাপারে টেকনাফ পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম বাহার উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, “গ্রিডের কাজ চলছে। পুরো কক্সবাজারে এ সমস্যা হচ্ছে; তবে বাহারছড়ায় যে দীর্ঘ সময় লোডশেডিং হচ্ছে এটা হওয়ার কথা নয় এবং এ ব্যাপারে আমাকে কেউ অভিযোগ করেনি, অভিযোগ না পাওয়ায় আমি আপনাকে কোন জবাব দিতে পারছিনা”।
শামলাপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মুসলিম উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, “বাৎসরিক গাছ কাটার কাজ চলছে। বিদ্যুৎ লাইনের পার্শ্ববর্তী গাছগুলো কাটার পর সংযোগ আবার সচল হবে”। বিদ্যুতের এ সংকট উত্তোরণে এলাকার সচেতন জনমহল উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-নজর কামনা করেন।