হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির সংবাদ প্রকাশের পর সর্বত্র তোলপাড়

.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক |
টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও লম্বাবিল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ সংক্রান্ত দৈনিক সাগরদেশ সহ বেশ কয়েকটি স্থানিয় ও জাতীয় পত্রিকা এবং বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশের পর সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। টনক নড়েছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্টানের। সংবাদের প্রতিবাদের আগেই সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক সহ বিভিন্ন সাংবাদিকদের হুমকি ধমকি, বিভিন্ন মামলা হামলার ভয় দেখাচ্ছে ঠিকাদারী প্রতিষ্টান ও তাদের কর্মচারী রা। সংবাদ প্রকাশের পর দিন ১১ অক্টোবর ঠিকাদার পরিচয়ে কফিল উদ্দিন নামক এক ব্যাক্তি কঠোর ভাষায় দম্বোক্তি করে নিজেকে মন্ত্রী ও এমপির মানুষ বলে পরিচয় দেয়। ০১৮৫৪৫২৫৫৮২ নম্বর সীম থেকে মুঠোফোনে তিনি দেখে নেবেন বলে হুমকি দিয়ে বলেন, একটি সাইটে আমার ২০ লাখ টাকা ইনকাম হয়। উক্ত ২০ লাখ টাকা সাংবাদিকদের পিছনে খরচ করব। আমার হাত অনেক উপরে! অপরদিকে তাদের অপর এক কর্মচারী নিজেকে ঠিকাদারের বিশ্বস্থ ও আস্থাভাজন পরিচয় দিয়ে সংবাদে আমাকে চোর বানানোর খেসারত দিতেই হবে। না হয় আমি দেখাব বলে ধমক দেয়। উভয়ের ফোনে দেয়া হুমকি সংক্রান্ত ভয়েস সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের কাছে সুরক্ষিত রয়েছে। তাদের মুঠোফোনে সাংবাদিকদের হুমকি দেয়ার পর টেকনাফের সাংবাদিক সমাজে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। ঠিকাদারের এ হেন দম্বোক্তি ও হুমকি তে ফুঁেস উঠেছে টেকনাফের কর্মরত সাংবাদিক সমাজ। টেকনাফ প্রেস ক্লাব সহ টেকনাফের কর্মরত সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ঠিকাদারের হুমকির তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ঠিকাদারের কঠোর শাস্তি দাবী করেছেন।