বাহারছড়া জালিয়াপালং এর অবৈধ করাতকল মালিকদের দৌঁড়-ঝাপ

.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক॥
পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর ও উখিয়া জালিয়াপালং ইউনিয়নের ছেপটখালীর ২টি অবৈধ করাত কলের মালিকদের দৌঁড়-ঝাপ শুরু হয়েছে। গত ১২ অক্টোবর দৈনিক ইনানী ও কয়েকটি অনলাইন পত্রিকায় এ অবৈধ করাতকলগুলোর সংবাদ প্রকাশ হয়।
এদিকে শামলাপুরের একটি করাত কল বন্ধ করে ফেলার ঘোষনা দেন মালিক পক্ষ। তবে করাত কলের মালিক স্থানীয় শামলাপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের পুত্র হামিদ আহাম্মদ ও ছেপটখালী গ্রামের মোজাফ্ফর আহাম্মদের পুত্র জনপ্রতিনিধি মুহাম্মদ মুছা, মানবপাচারকারী আবুল ফয়েজ ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে বিটকর্মকর্তাদের বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে করাতকল গুলো সচল রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, মালিক পক্ষ করাতকলগুলো টিকিয়ে রাখার জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের দ্বারে-দ্বারে ধরনা দিচ্ছে। উক্ত অবৈধ করাতকলগুলোর কারনে এককালের উপকূলের সবুজ বনায়ন হারিয়ে ফেলতে শুরু করেছে বাস্তব চিত্র। নিত্য করাতকলগুলোতে চিরাই হচ্ছে বনের মূল্যবান গাছ-গাছালি। ফলে একদিকে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার আর অপরদিকে দূষিত হচ্ছে এলাকার পরিবেশ।
শীঘ্রই উক্ত করাতকলগুলোর বিরুদ্ধে যথাযত ব্যবস্থা নিতে এলাকার পরিবেশপ্রেমি সচেতন জনমহল উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।