ঢাকায় চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

china_president_27648_1476432446.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
ঢাকা পৌঁছেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। শুক্রবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে তাকে বহনকারী এয়ার চায়নার বিশেষ বিমান হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

এ সময় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে চীনা প্রেসিডেন্টকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় অভ্যর্থনা জানান।

সংবর্ধনার অংশ হিসেবে বাংলাদেশের আকাশসীমায় প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে বিমানবাহিনীর দু’টি জেট শিং জিনপিংকে বহনকারী বিমানকে এসকর্ট করে নিয়ে আসে।

বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর একুশবার তোপধ্বনি দেয়া হয়। এরপর লাল গালিচা সংবর্ধনা শেষে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত একটি চৌকস দল সফররত প্রেসিডেন্টকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

পরে চীনের প্রেসিডেন্ট ডায়াস থেকে সালাম গ্রহণ করেন। তিনি বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতিকে সঙ্গে নিয়ে গার্ড পরিদর্শন করেন। এ সময় দু’দেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।

বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে চীনা প্রেসিডেন্টকে হোটেল লা মেরিডিয়ানে নিয়ে যাওয়া হবে।

প্রায় তিন দশক পর চীনা কোনো প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সফরে এলেন। তার আগে ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশে এসেছিলেন চীনের প্রেসিডেন্ট লি জিয়ান নিয়ান।

শি জিনপিংয়ের সফরকে নতুন যুগের সূচনা বলে অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সফরে সম্ভাব্য ২৫টিরও বেশি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক হতে পারে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

সফর ঘিরে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, চীনা প্রেসিডেন্টের সফর দু’দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্কে নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবে।

শি জিনপিংয়ের সঙ্গে সফরে তার নয়জন মন্ত্রী ছাড়াও সরকারি কর্মকর্তা, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মী রয়েছেন।

শি জিনপিংকে স্বাগত জানাতে রাজধানী ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে বাংলাদেশ ও চীনের জাতীয় পতাকা টানানো হয়েছে। রাস্তায় রাস্তায় শোভা পাচ্ছে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের পোট্রেট।