চকরিয়ায় ট্রান্সফোর্সের অভিযানে জব্দকৃত বিপুল পরিমাণ কারেন্ট জাল আগুনে ধ্বংস

77.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া |
কক্সবাজারের চকরিয়ায় উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত ট্রান্সর্ফোসের যৌথ অভিযানে উপজেলার সামুদ্রিক উপকূলীয় এলাকার নদী থেকে বিপুল পরিমান কারেন্ট জব্দ করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলামের নেতৃত্বে ট্রান্সফোর্সের একটিদল মাতামুহুরী নদীর শাখাখালে এ অভিযান পরিচালনা করেন।
ইলিশ মাছের প্রজনন সক্ষমতা বাড়ানোর লক্ষ্যে সরকার ঘোষিত ২২দিন মাছ আহরণের ওপর নিষেধাজ্ঞা সত্বেও তা অমান্য করে কারেন্ট জাল বসিয়ে মাছ আহরণ করার খবর পেয়ে এ অভিযান চালানো হয়েছে। পরে জব্দকৃত জাল সমুহ আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।
অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান বলেন, গত ১২ অক্টোবর থেকে সরকার দেশের সাগর নদী সহ জলাশয়ে ডিম ওয়ালা ইলিশ মাছ আহরণ বন্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। কিন্ত সরকারের ওই আদেশ অমান্য করে একশ্রেণির জেলেরা সাগর ও নদীতে ঝাটকা ধরা অব্যাহত রেখেছে। এরই জের ধরে শুক্রবার সকালে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলামের নেতৃত্বে উপজেলা মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তারা ফিশিং বোট যোগে উপজেলার উপকূলী এলাকায় অভিযান চালায়। তিনি বলেন, এসময় উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের দুটি স্লুইস গেইট এলাকায় কারেন্ট জাল বসিয়ে মাছ আহরণ করার সময় এক হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৫টি বড় জাল জব্দ করা হয়। পরে জব্দকৃত এসব জাল গুলো উপজেলা পরিষদে এনে আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। ##